শীতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াবে যেসব ফল

0
301

করোনাকালে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো দেহের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা। করোনার কারণে এখন সকলেই চিন্তিত, কখন অসুস্থ হয়ে হয়ে, কখন করোনার কবলে পরে। এছাড়াও শীতকালে ফ্লু বা সংক্রমণ ছড়িয়ে পরে, তাই এই সময়ে করোনার সংক্রমণের ঝুঁকিও বেশি। এই সময়ে সংক্রমণ থেকে দূরে থাকার জন্য জুস বা গ্রিন ‘টি’ পান করছেন।

কিন্তু শীতের সময়ে বেশ কিছু ফল পাওয়া যায়, যা আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে সাহায্য করে এবং সংক্রমনের সাথে লড়াইয়ে সক্ষম হয়। চলুন তাহলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এমন ৫টি ফলের নাম জেনে নেই-

পেয়ারা: পেয়ারা শীতের প্রিয় ফল হিসাবে বেশ জনপ্রিয়। পেয়ারা ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস (অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস) সমৃদ্ধ, যা দেহে সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করে এবং কোষকে যে কোনও ধরনের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা করে। এছাড়া পেয়ারাতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার পাওয়া যায় যা হার্ট এবং রক্তে শর্করার জন্য ভালো।

ন্যাসপাতি: শীতের মরসুমের অন্যতম ফল হল ন্যাসপাতি। এটি অন্ত্রের পক্ষে খুব ভালো। ন্যাসপাতিতে ভিটামিন ‘ই’ এবং ‘সি’ এর মতো অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এটি খেতেও যেমন সুস্বাদু তেমনি এর রসও সমান উপকারী।

কমলা: কমলা ভিটামিন সি এবং ক্যালসিয়াম উভয়েরই একটি ভাল উৎস। এই ফল শীতের মরসুমে সংক্রমণের ঝুঁকি হ্রাস করে এবং শরীরকে ভিতর থেকে শক্তিশালী করে তোলে। আপনি যদি কমলা পছন্দ করেন তবে এটির রসও খেতে পারেন।

বেদানা বা ডালিম: বেদানা দেখতে লাল বর্ণের এবং খেতে মিষ্টি। এটি রক্তকে পাতলা করে, যা রক্তচাপ, হার্ট, ওজন হ্রাস এবং ত্বকের জন্য খুব ভালো বলে মানা হয়।

আপেল: একটি আপেল শরীরকে অনেক রোগ থেকে দূরে রাখে। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা শক্তিশালী করে তোলে। আপেলে ফাইবার, ভিটামিন সি এবং কে থাকে।

অর্থসূচক/এনজেএস/এএইচআর