অবশেষে বার্সার প্রেসিডেন্টের পদত্যাগ

0
250

পদত্যাগ করলেন বার্সেলোনার প্রেসিডেন্ট জোসেপ মারিয়া বার্তোমেউ। সেটাও মূলত মেসির সঙ্গে বিরোধের জেরেই। এফ সি বার্সেলোনার ২০ হাজার ফ্যান সই করে দাবি জানিয়েছিলেন, ক্লাব প্রেসিডেন্টকে পদত্যাগ করতে হবে। তারপরেই পদত্যাগ করলেন বার্তোমেউ। না হলে অবশ্য আগামী মাসে তাঁর বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাবও আনার ষোলআনা সম্ভাবনা ছিল। তাঁর সঙ্গে বোর্ড অফ ডিরেক্টরসের বাকি সদস্যরাও পদত্যাগ করেছেন।

পদত্যাগ করে বার্তোমেউ জানিয়েছেন, `বোর্ডের বাকি সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে, সকলে একমত হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ আগামী তিন মাসের মধ্যে প্রেসিডেন্টসহ নতুন বোর্ড সদস্যদের নির্বাচন করা হবে। তার আগে অস্থায়ী বোর্ড ক্লাবের পরিচালনার দায়িত্বে থাকবে।

গত ছয় বছর ধরে তিনি ক্লাবের সভাপতি ছিলেন। তাঁর আমলে বার্সেলোনা উয়েফা চ্যাম্পিয়ন হয়েছে, চার বার লা লিগা ও চারবার কোপা ডেল রে জিতেছে। কিন্তু কয়েক মাস আগে লিওনেল মেসি তাঁর প্রিয় ক্লাব ছেড়ে চলে যেতে চেয়েছিলেন। ক্লাব সাম্প্রতিক সময়ে কোনো বড় প্রতিযোগিতায় জিততে পারেনি। দেনা সমানে বেড়েছে। তারই জেরে পাল্লা দিয়ে বেড়েছে সমর্থকদের অসন্তোষ।

গত সেপ্টেম্বরে ক্লাব প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন মেসি। ফুটবল ওয়েবসাইট গোল-কে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘প্রেসিডেন্ট নিজের কথা রাখেননি। দীর্ঘ সময় ধরে ক্লাব কোনো প্রকল্প হাতে নিচ্ছে না। কিছুই করা হচ্ছে না।’ মেসির সঙ্গে বিরোধের জেরে অসন্তোষের জন্যই তিনি পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেন বলে মনে করা হচ্ছে।

চলতি মাসেই ক্লাবের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল, গত সিজনে তাদের ৯ কোটি ৭০ লাখ ইউরো ক্ষতি হয়েছে। এরপর বার্তোমেউ জানিয়েছিলেন, তিনি প্রস্তাবিত নতুন ইউরোপীয় সুপার লিগ খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন, এর ফলে আর্থিক দিক থেকে ক্লাব লাভবান হবে। ইউরোপের সব চেয়ে ভালো টিমগুলিকে নিয়ে এই সুপার লিগ চালুর প্রস্তাব আছে। এপি, এএফপি, রয়টার্স

 

অর্থসূচক/এএইচআর