ধোনির কড়া সমালোচনায় গম্ভীর

এবারের আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের প্রথম দুই ম্যাচেই সাত নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। প্রথম ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে জিতে যাওয়ায় সেটা নিয়ে তেমন সমালোচনা হয়নি। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে রাজস্থান রয়্যালসের বিপক্ষে হাই স্কোরিং ম্যাচটি ১৬ রানে হেরে যাওয়ায় সমালোচনা এড়িয়ে যেতে পারেননি ধোনি। তাঁর কট্টর সমালোচনা করেছেন সাবেক সতীর্থ গৌতম গম্ভীরও।

গত রাতের ম্যাচে সাত নম্বরে নেমে উইকেটে মানিয়ে নিতেই কিছুটা সময় পার করে ফেলেন ধোনি। শেষ ওভারে তিনটি বিশাল ছকায় তাঁর মোট রান ২৯-এ (১৭ বলে) পৌঁছালেও সেটা দলকে জয় পাইয়ে দেয়নি। চেন্নাই ম্যাচটা হেরে যায় ১৬ রানে।

ধোনির ব্যাটিং পজিশনের সমালোচনা করে গম্ভীর বলেন, ‘সত্যি বলতে আমি কিছুটা অবাক হয়েছি। ধোনি সাত নম্বরে ব্যাটিং করছে? গায়কোয়াডকে তাঁর আগে পাঠিয়েছে, স্যাম কারানকে তার আগে পাঠিয়েছে। এটার কোনও অর্থ নেই আমার কাছে। তোমার সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া উচিত ছিল। এটা কখনোই সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়া নয়। ২১৭ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে সাত নম্বরে ব্যাটিং? খেলা তখনই শেষ। সম্ভবত ফাফ এই ম্যাচের শেষ সৈন্য ছিল।’

ম্যাচটিতে ৩৭ বলে ৭২ রান করেন চেন্নাইয়ের প্রোটিয়া তারকা ফাফ দু প্লেসি। শেষদিকে ধোনি ব্যাটে ঝড় তোলায় দুইশ রান স্পর্শও করে চেন্নাই। কিন্তু কাঙ্ক্ষিত দুই পয়েন্ট পায়নি ধোনির দল। গম্ভীর আরও বলেন, ‘হ্যাঁ, আপনি হয়তো বলতে পারেন ধোনি শেষ ওভারে তিনটি ছয় হাকিয়েছে। সত্যি বলতে এটা কাজে আসেনি। অন্য অধিনায়করা সাতে ব্যাটিং করলে অনেক সমালোচনা পেত। এটা ধোনি বলেই সেভাবে সমালোচনা হচ্ছে না। সুরেশ রায়না যখন তোমার দলে নেই, তখন মানুষকে তুমি বিশ্বাস করাচ্ছো যে স্যাম কারান, ঋতুরাজ গায়কোয়াড, কেদার যাদব, ফাফ দু প্লেসি, মুরালি বিজয়রা তোমার থেকে ভালো ব্যাটসম্যান!’

এদিকে ম্যাচ শেষেও দেরীতে ব্যাটিংয়ে নামার কারণ জানতে চাওয়া হয় ধোনির কাছে। ২০১৯ সালের ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের পর এবারের আইপিএল দিয়ে মাঠে নামা ধোনি বলেন, ‘আসলে আমি অনেকদিন ধরে ব্যাটিং করিনি। ১৪ দিনের কোরেন্টাইন পর্বও কোনও সাহায্য করেনি। তবে ভিন্ন কিছু চেষ্টা করছিলাম। স্যামকে সুযোগ দিয়েছি। টুর্নামেন্ট সবে শুরু হয়েছে। কয়েকটা বিষয় পরীক্ষা করার সময় রয়েছে। সেগুলো যদি ঠিকঠাক মতো না হয়, তা হলে নিজেদের শক্তির জায়গায় ফিরে আসতেই হবে।’

 

অর্থসূচক/এএইচআর