ধোনির ঝড়েও শেষ রক্ষা পায়নি চেন্নাই

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চলতি আসরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসকে ১৬ রানে হারিয়েছে রাজস্থান রয়্যালস। রাজস্থানের দেওয়া ২১৭ রানের পাহাড়সম লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৬ উইকেটের খরচায় ২০০ রানে থেমে যায় চেন্নাইয়ের ইনিংস।

শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টসে জিতে রাজস্থানকে ব্যাট করতে পাঠান চেন্নাই দলপতি মহেন্দ্র সিং ধোনি। ব্যাট করতে নেমে নবাগত ইয়াশহাসভি জয়শ্বয়ালকে হারায় রাজস্থান। দলীয় ১১ রানে চাহারের শিকার হয়ে সাজঘরে ফিরে যান তিনি। অভিষিক্ত জয়স্বয়ালের বিদায়ের পর ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হন উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সাঞ্জু স্যামসন। দলপতি স্মিথকে সঙ্গে নিয়ে শুরু করেন তান্ডবলীলা। চেন্নাইয়ের বোলারদের তুলোধুনা করে ১৯ বলেই তুলে নেন ব্যাক্তিগত অর্ধশতক।

দলীয় ১৩২ রানের মাথায় সাঞ্জুর রানের গাড়িতে ব্রেক চাপেন লুঙ্গি এনডিগি। কিন্তু ততক্ষণে সর্বনাশ যা করার করে ফেলেছেন এই ব্যাটসম্যান। খেলে ফেলেছেন ৩২ বলে ৭৪ রানের টর্ণেডো ইনিংস। থেমে থাকেননি স্মিথও ক্যুরানের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরার আগে খেলেন ৪৭ বলে ৬৯ রানের ইনিংস। এই দুই ব্যাটসম্যান ছাড়া চোখে পড়ার মতো ইনিংস খেলতে পারেননি কেউই। শেষ দিকে আর্চারের ঝড়ো ৮ বলে ২৭ রানে ভর করে ৭ উইকেটের খরচায় ২১৬ রান তোলে রাজস্থান রয়্যালস।

চেন্নাইয়ের হয়ে স্যাম ক্যুরান নেন তিনটি উইকেট। আর চাহার, এনডিগি এবং চাওলা নেন একটি করে উইকেট।

রাজস্থানের বড় সংগ্রহের জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা সন্তোষজনক ছিল চেন্নাইয়ের। কিন্তু বেশিক্ষণ সেই ধারা ধরে রাখতে পারেনি গেল আসরের রানার্স আপরা। দলীয় ৫৬ রানে ওয়াটসনের বিদায়ের ভেতর দিয়ে শুরু হয় চেন্নাইয়ের উইকেট পতন। বড় ইনিংস খেলতে ব্যর্থ হন ক্যুরান, গায়কোয়াদও। তবে উইকেটের এক প্রান্ত আগলে ধরে দলকে ন্টেনে নিয়ে যেতে থাকেন ফাফ ডু প্লেসি। সঙ্গে নেন কেদার যাদবকে। কিন্তু বেশিদূর যেতে পারেননি। দলীয় ১১৪ রানে সাঞ্জু স্যামসনের গ্লাভসবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়েন যাদব। নামের পাশে যোগ করেন ২২টি রান।

এরপর দলকে উদ্ধারের জন্য ব্যাট হাতে এগিয়ে আসেন ধোনি। ওদিকে তখনও উইকেট কামরে বসে আছে ডু প্লেসি। দুই জনে মিলে সচল রাখেন দলের রানের চাকা। কিন্তু শেষতক ৩৭ বলে ৭২ করে আর্চারের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরেন ডু প্লেসি। শেষ ওভারে ধোনি ঝড় তুললেও শেষ রক্ষা পায়নি চেন্নাই। ১৬ রানের হারকে সঙ্গী করে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের।

 

অর্থসূচক/এএইচআর