‘খিচুড়ি রান্না শিখতে তো বাইরে থেকে এদেশে আসার কথা’

নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেছেন, এই প্রথম দেখলাম খিচুড়ি রান্না শিখতে নাকি অনেক বড় বড় আমলা বিদেশ যাবেন। আমাদের কাছে খিচুড়ি রান্না শিখতে বাইরে থেকে লোক আসতে পারে।

আজ বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে রণাঙ্গনের মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযুদ্ধ প্রজন্মের উদ্যোগে আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন।

মান্না বলেন, বাংলাদেশের মানুষ খিচুড়ি খেতে জানে না? খিচুড়ি রান্না করতে জানে না? খিচুড়ি প্যাকেট করতে জানে না? বিতরণ করতে জানে না? আমরা মিলাদ করি, কুলখানি করি, আমরা খিচুড়ি দেই; আমাদের কোনও সমস্যা হয়নি। কিন্তু এই প্রথম দেখলাম, খিচুড়ি রান্না শিখতে নাকি অনেক বড় বড় আমলা বিদেশ যাবেন। এটা কোনও কথা?

তিনি বলেন, এরপর বলা হল যে, খিচুড়ি রান্না নয়, কীভাবে প্যাকেট করে, কীভাবে বিতরণ করে সেটা দেখতে যেতে চায়। এখানে যেকোনও একটা হোটেলের মেসিয়ারকে বললেই দেখিয়ে দিবেন কীভাবে প্যাকেট করতে হয়। এখনও পর্যন্ত আমরা জানি না খিচুড়ির জন্য কোন কোন দেশে পাঠানো হবে। সচিব এসে বললেন তারা কী করতে চান, মানুষ বিশ্বাস করেনি।

মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, এই সরকার সব সময় বলে যে তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাস করে। কিন্তু এখন বুঝা গেছে যে তারা মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী না। মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার নিগৃহীত ও অবহেলিত হয়েছেন তাদের দ্বারা। মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার জেলখানায় মারা গেছেন। মুক্তিযুদ্ধে একজন বড় কমান্ডার ডা. জাফরুল্লাহ, উনি করোনার টেস্টের পদ্ধতি আবিষ্কার করেছিলেন, যেহেতু সরকারকে সমর্থন করেন না, এই জন্য এই কিট কাজেই লাগাতে দেওয়া হয়নি। তাহলে সরকার কিসে বিশ্বাস করে, এই কথা বুঝতে হবে সবার আগে।

তিনি বলেন, আজকে যারা ক্ষমতায় আছে, এরা তো ক্ষমতায় থাকার কথা না। মানুষ এদের চায় না, কোনও ভোট হয়নি। ৩০ ডিসেম্বরের ভোট আগের রাতে ডাকাতি করে নিয়ে গেছে। তার মানে এদের কাছে একটাই লক্ষ্য সেটা হলো ক্ষমতা। ক্ষমতায় থাকবে বলে, পুলিশসহ প্রশাসনের লোকদের যথেষ্ট সুবিধা দিয়ে যাচ্ছে।

অর্থসূচক/কেএসআর