বাবা’র সঙ্গে শেষ কথা হলো না আইরিনের

0
56

সবাইকে কাঁদিয়ে না ফেরার দেশে পাড়ি জমিয়েছেন ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা সাদেক বাচ্চু। গত সোমবার ১২.০৫ মিনিটে তিনি মারা যান। তার এই মৃত্যুতে চলচ্চিত্র অঙ্গনে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। গুনী এই শিল্পীর জন্য বেশ আক্ষেপ থেকেই গেলো বর্তমান প্রজন্মের নায়িকা আইরিনের।

আইরিন বলেন, সাদেক বাচ্চু আংকেল এই সেপ্টেম্বরের ৪ তারিখে আমাকে ফোন দিয়েছিলেন। তখন আমি বাইরে, আমি বললাম- আংকেল আমি তো বাইরে। বাসায় গিয়ে ফোন দিচ্ছি। সেদিন বাসায় ফিরতে অনেক রাত হয়ে গেছে। আর তার পরদিনও ফোন দেওয়া হলো না। পরে আমি যখন ফোন দিলাম, তখন তিনি হাসপাতালে। ফোন কেউ ধরল না। উনি আমাকে শেষ কী বলতে চেয়েছিলেন আমি জানি না। এখন আফসোস লাগছে, জানি এই আফসোসটা চিরদিনই থেকে যাবে।

সাদেক বাচ্চুর সঙ্গে আইরিন প্রথম ভালোবাসা জিন্দাবাদ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। যেখানে তার বাবা ছিলেন সাদেক বাচ্চু। এরপর পদ্মার প্রেমসহ আরো দুটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন আইরিন। যার প্রতিটি ছবিতেই বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন এই অভিনেতা।

আইরিন বলেন, তিনি বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন আমার প্রতিটি ছবিতেই। আমাকে একেবারে মেয়ের মতো দেখতেন। বাবার মতোই স্নেহপূর্ণ কথা বলতেন। তিনি শুধু অভিনেতাই নন, একজন শিক্ষক। আমরা যারা অভিনয় না শিখেই এই জগতে চলে আসি, তাদের তিনি হাতে-কলমে অভিনয় শিখিয়ে দিতেন। কোনোভাবেই, কখনোই বিরক্ত হতেন না। এই স্কুলিংটা আমরা আর কারো কাছ থেকে সেভাবে পাবো না।

বরেণ্য এই অভিনেতার গত ৬ সেপ্টেম্বর থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। ৮ সেপ্টেম্বর করোনার নমুনা পরীক্ষার রিপোর্টে পজিটিভ আসে। শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় ১২ সেপ্টেম্বর রাতে মহাখালীর ইউনিভার্সাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের (আয়শা মেমোরিয়াল হাসপাতাল) আইসিইউতে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

অর্থসূচক/এএ/এমএস