‘গণশুনানিতে সাক্ষ্য দেওয়ায় র‌্যাব আমাকে হুমকি দিয়েছে’

নারায়ণগঞ্জে সাত খুন

0
88
shahid
কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম
shahid
কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম

নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনায় গণশুনানিতে সাক্ষ্য দিয়ে বের হওয়ার পর র‌্যাব হুমকি দিয়েছে বলে অভিযোগ করেন নিহত কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম।

বৃহস্পতবিার দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সার্কিট হাউসে সাক্ষ্য শেষে তিনি সাংবাদিকদের কাছে এই অভিযোগ তুলে ধরেন। গণশুনানিতে প্রথম দিনে ছয়জন সাক্ষ্য দেন।

শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘গণশুনানিতে র‌্যাবের বিরুদ্ধে কথা বলায় আমাকে হুমকি দেওয়া হয়েছে। জীবনের নিরাপত্তা নিয়ে এখন আমি শঙ্কায় আছি। তাই আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে নিরাপত্তা কামনা করছি’।

র‌্যাব-১১ এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট আনোয়ার লতিফ খান বলেন, নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলামের অভিযোগ ভিত্তিহীন। তবে তার অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে র‌্যাবের নামেও কেউ যদি এই ধরনের হুমকি দিয়ে থাকে তাহলে আমরা তা তদন্ত করে দেখবো।

শহীদুল দাবি করেন, গত ২৭ এপ্রিল অপহৃত নজরুলসহ সাতজনকে কাউন্সিলর নূর হোসেন ৬ কোটি টাকা দিয়ে র‌্যাবের মাধ্যমে হত্যা করেছে।

শহীদুল তদন্ত কমিটিকে বলেছেন, এই গণশুনানি সিদ্ধিরগঞ্জে হলে অনেকে সাক্ষ্য দিতে আসতো। সেখানে হাজার হাজার নারী পুরুষ অংশ নিত এবং নুর হোসেন ও তার লোকজনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিত। নূর হোসেনের ভয়ে এখানে কেউ এসে এখন সাক্ষ্য দিচ্ছে না।

শুনানিতে কী বললেন সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, শুনানিতে আমি কী বলেছি তা তদন্তের স্বার্থে এখন বলা যাচ্ছে না।

নূর হোসেন ভারতে পালিয়ে গেছেন বলে র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল জিয়াউল আহসান জানান। তবে, নূর হোসেনের পালিয়ে যাওয়ার পেছনে র‌্যাবের সহায়তা রয়েছে বলে অভিযোগ করেন শহীদুল ইসলাম।

নজরুলের শ্বশুরের ওই অভিযোগের প্রতিক্রিয়ায় র‌্যাবের মুখপাত্র হাবিবুর রহমান বলেন, তদন্তকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে শহীদুল এই ধরনের কথা বলছেন।

তিনি আরও বলেন, র‌্যাবের তিন কর্মকর্তা এবং নূর হোসেনকে বাঁচানোর চেষ্টা চালাচ্ছে বলে শহীদুলের যে অভিযোগ তা ভিত্তিহীন।

প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসামিদের গ্রেপ্তারের আশ্বাস দেওয়ায় তাদের ওপর ভরসা রাখছেন শহীদুল। তবে দুই-এক দিনের মধ্যে গ্রেপ্তার না হলে আন্দোলনে নামার হুমকি দিয়েছেন সাবেক এই ইউপি চেয়ারম্যান।

এই হত্যাকাণ্ডে সম্পৃক্ততার অভিযোগ ওঠার পর র‌্যাব-১১ এর অধিনায়কসহ তিন কর্মকর্তাকে প্রত্যাহার করে আনার পর সামরিক বাহিনী থেকে তাদের অবসরে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া তাদেরকে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জের সাত হত্যাকাণ্ড তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশে গঠিত তদন্ত কমিটির দ্বিতীয় দিনের গণশুনানিতে সাক্ষ্য দিতে বৃহস্পতিবার নারায়ণগঞ্জ সার্কিট হাউজে উপস্থিত হন সিদ্ধিরগঞ্জের পশ্চিম মিজমিজি এলাকার বাসিন্দা কাউন্সিলর নজরুল ইসলামের শ্বশুর শহীদুল ইসলাম। তার ভাষ্য অনুযায়ী সাতজনকে অপহরণ করা হয়েছিল নারায়ণগঞ্জ শহরে ফতুল্লা থানার ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোড থেকে। তবে অপহৃত নজরুল এবং মামলার আসামিরা সবাই সিদ্ধিরগঞ্জের বাসিন্দা।