শেয়ার কারসাজিঃ ১২ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা
মঙ্গলবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » পুঁজিবাজার

শেয়ার কারসাজিঃ ১২ ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা

bsec_secশেয়ারকারসাজির অভিযোগ ১২ ব্যাক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে ৭৫ লাখ টাকা জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।বুধবার অনুষ্ঠিত বিএসইসির কমিশন বৈঠকে এ জরিমানা করা হয়। বিএসইসি সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
যেসব ব্যাক্তিকে জরিমানা করা হয়েছে তারা হলেন- আব্দুর রহিম, মাহফুজুর রহমান ভুঁইয়া, বুলবুল আহমেদ ও বদরুন নেসা।প্রতিষ্ঠানগুলো হলো নিউ ক্যাপিটাল ফাইন্যান্স অ্যান্ড কমার্স, এম্পায়ার সিকিউরিটিজ হোল্ডিং লিমিটেড,ইক্যুইটি ক্যাপিটাল লিমিটেড,এ.আর. কনসালটেশন,নাহার আফরোজ ওমর আলী ফাউনডেশন, তাসহার্ট রায়াত এগ্রো এন্টারপ্রাইজ, ভিশন ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড এবং প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজম্যান্ট লিমিটেড।

বিএসইসির তথ্য অনুসারে, ২০০৯-২০১০ সালে আব্দুর রহিম ও তার এসোসিয়েটস রহিম টেক্সটাইল,বঙ্গজ,মিথুন নিটিং ও রেনেটার শেয়ার নিজেদের মধ্যে সিরিজ লেনদেনের মাধ্যমে কারসাজিমূলকভাবে শেয়ারের মূল্য প্রভাবিত করে। এর মাধ্যমে আব্দুর রহিম এবং তার এসোসিয়েটস কর্তৃক মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক সক্রিয় লেনদেন ও নিজেদের বিক্রিত শেয়ার ক্রয়ের মাধ্যমে বেনিফিশিয়াল ওনারশীপ পরিবর্তন না করে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড অর্ডিন্যান্স,১৯৬৯ এর সেকশন ১৭ (ই)  (ii) এবং সেকশন ১৭ (ই)(ভি) ভঙ্গ করায় আব্দুর রহিমকে ১০ লাখ টাকা এবং তার এসোসিয়েটস এর মাহফুজুর রহমান ভুঁইয়া,বুলবুল আহমেদ ও নিউ ক্যাপিটাল ফাইন্যান্স অ্যান্ড কমার্স লিমিটেডের প্রত্যেককে ২ লাখ টাকা করে ৬ লাখ টাকা।

২০১১ সালের মাঝামাঝি সময়ে রেকিট বেনকিজার (বিডি) লিমিটেডের শেয়ার লেনদেনে আব্দুর রহিম নিজের নামে বিভিন্ন বিও হিসাবের মাধ্যমে সক্রিয় লেনদেন,অন্য বিনিয়োগকারীদের প্রলুব্ধ করার জন্য সিরিজ লেনদেন,বিভিন্ন শেয়ার মূল্য,শেয়ারের পরিমাণ ও ট্রেড কন্ট্রাক্ট এর সংখ্যা প্রভাবিত করার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স,১৯৬৯ এর সেকশন ১৭ (ই) (রর) এবং সেকশন ১৭ (ই) (ভি) ভঙ্গ করায় আব্দুর রহিমকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা।

এছাড়া ২০১১ সালের জুলাই মাসের বিভিন্ন তারিখে ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড এর উল্লেখযোগ্য সংখ্যক (সিগনিফিকেন্ট ভেলু) লেনদেন করা হয়। এ লেনদেন অধিক সংখ্যক হাওলার মাধ্যমে রহিম ও তার এসোসিয়েট মূল্য প্রভাবিত করার উদ্দেশ্যে সিরিজ লেনদেন, মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক সক্রিয় লেনদেন করে। যা সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, ১৯৬৯ এর সেকশন (ই) (রর) এবং সেকশন ১৭ (ই) (ভি) ভঙ্গ করায় আব্দুর রহিমকে ১০ লাখ টাকা এবং তার এসোসিয়েটসের নিউ ক্যাপিটাল ফাইন্যান্স অ্যান্ড কমার্স লিমিটেড, এম্পায়ার সিকিউরিটিজ হোল্ডিং লিমিটেড,ইক্যুইটি ক্যাপিটাল লিমিটেড,এ.আর. কনসালটেশন,নাহার আফরোজ ওমর আলী ফাউনডেশন,বদরুন নেসা ও তাসহার্ট রায়াত এগ্রো এন্টারপ্রাইজের প্রত্যেককে ২ লাখ টাকা করে মোট ১৪ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত নেয়। উক্ত সন্দেহজনক ও দূরভিসন্ধিমূলক লেনদেনের বিষয়টি কমিশন এবং স্টক এক্সচেঞ্জকে অবহিত না করায় সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার,স্টক ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা,২০০ এর দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণ বিধি ৮ ভঙ্গ করায় ভিশন ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডকে (ডিএসই সদস্য নং ২৪) ১০ লাখ টাকা জরিমানা করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

২০১১ সালের প্রথম প্রান্তিকে ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড এর শেয়ার লেনদেনে কাউন্টার পার্টি ট্রেড সম্পন্ন করায় অর্থাৎ নিজের বিক্রিত শেয়ার ক্রয়ের মাধ্যমে লেনদেনে সক্রিয় ভূমিকা রাখার অর্থাৎ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, ১৯৬৯ এর সেকশন ১৭ (ই)(ররর) ভঙ্গ করায় মাধ্যমে এম্পাইয়ার সিকিউরিটিজ হোল্ডিং লিমিটেড,ইক্যুইটি ক্যাপিটাল লিমিটেড,নিউ ভিশন ক্যাপিটাল ফাইন্যান্স অ্যান্ড কমার্স লিমিটেড, বুলবুল আহমেদ ও এ. আর কনসালটেশন সিকিউরিটিজের প্রত্যেককে ২ লাখ টাকা করে মোট ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। আর অনুমোদিত হারের অতিরিক্ত মার্জিন ঋণ প্রদান করায় ফাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

এচাড়া আজকের সভায় ফিনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের লেনদেনে দূরঅভিসন্ধিমূলক  লেনদেনে কার্যকর এবং ক্লায়েন্টের লিখিত আদেশ ব্যতিরেকে লেনদেন করার মাধ্যমে সিকিউরিটিজ ও এক্সচেঞ্জ কমিশন (স্টক ডিলার,স্টক ব্রোকার ও অনুমোদিত প্রতিনিধি) বিধিমালা ২০০০ এর দ্বিতীয় তফসিল এর আচরণ বিধি ১,২ (২),৬ ও ৮ ভঙ্গ করায় ভিশন ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেডকে ৮ লাখ টাকা জরিমানার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

জিইউ

এই বিভাগের আরো সংবাদ