সৌদিতে মৃতের সংখ্যা বাড়ছে, ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বব্যাপী

মার্স ভাইরাস

0
112
mers
মার্স ভাইরাসের আণুবীক্ষণীক চিত্র (ছবি- ইন্টারনেট)
mers
মার্স ভাইরাসের আণুবীক্ষণীক চিত্র (ছবি- ইন্টারনেট)

মার্সে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়েই চলেছে সৌদি আরবে। এই পর্যন্ত দেশটিত গত ২০ মাসে মৃত্যু হয়েছে ১৪৭ জনের। আর বাহকের মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ছে বিশ্বব্যাপী। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রেও মার্স ছড়িতে পড়ার খবর পাওয়া গেছে। খবর রয়টার্স ও আরব নিউজের।

সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সোমবার মার্স আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন পাঁচ জন। এই নিয়ে ২০১২ সালের সেপ্টেম্বর থেকে এই পর্যন্ত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে ১৪৭ জনের মৃত্যু ঘটেছে। এর মধ্যে গত এপ্রিলে মারা গেছে প্রায় ৩৫ জন। আর গত দুই সপ্তাহে মারা গেছে প্রায় ৪৫ জন।

মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব ঈদুল-আযহার পাঁচ মাস আগে মার্সের এই রুদ্ররূপ দুশ্চিন্তায় ফেলে দিয়েছে সৌদি স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে। এই সময় হজব্রত পালনের উদ্দেশ্যে পৃথিবী বিভিন্ন দেশ থেকে অসংখ্য তীর্থযাত্রী সৌদি আরব সফর করবেন এবং ফিরে যাওয়ার সময় বহন করে নিয়ে যাবেন মার্সের জীবাণু।

এদিকে রয়টার্স জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রে মার্সে আক্রান্ত দ্বিতীয় ব্যক্তি সনাক্ত করা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আক্রান্ত ব্যক্তি পেশাগত কারণে সৌদি আরবে বসবাস করেন। সম্প্রতি পরিজনদের সাথে দেখা করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রে সফর করার সময় তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরবর্তীতে চিকিৎসকরা তার রক্তে মার্সে উপস্থিতি খুঁজে পান।

উল্লেখ্য, মিডল ইস্ট রিস্পাইরেটোরি সিন্ড্রোম’কে সংক্ষপে মার্স নামে ডাকা হয়। এই ভাইরাস শ্বসনতন্ত্রকে বিকল করে দেয়। প্রাথমিকভাবে এই ভাইরাস আক্রান্ত হলে সাধারণে সর্দি-কাশি দেখা দিলেও ধীরে ধীরে অন্যান্য সমস্যা দেখা দিতে শুরু করে। এই রোগ খুবই সংক্রামক এবং উট থেকে সৌদি আরবে এই রোগের বিস্তৃতি ঘটেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এই ভাইরাসের কোন প্রতিষেধক এখনও পর্যন্ত প্রস্তুত করা সম্ভব হয়নি। তবে, সাধারণ স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে এই রোগ থেকে দূরে থাকা সম্ভব।