করোনায় বেকার হয়ে কলা বিক্রি করছেন শিক্ষক!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

0
122

করোনার জেরে লকডাউনে ভারতের অন্ধ্রপ্রদেশের স্কুলশিক্ষক পাট্টেম ভেঙ্কট সুব্বাইআহ চাকরি হারান। অন্য কোন উপায় খুঁজে না পেয়ে সংসার চালাতে ওই শিক্ষক (৪৩) এখন রাস্তায় রাস্তায় কলা বিক্রি করছেন।

অন্ধ্রপ্রদেশের নেল্লোরের এই শিক্ষক সুব্বাইআহ বলেন, সংসার চালানোর জন্য উপায়ন্তর না পেয়ে তাকে এই পথ বেছে নিতে হয়েছে। পরিবারে স্ত্রী এবং দুই সন্তান রয়েছে তার।

স্কুলে সংস্কৃত আর তেলুগু পড়াতেন এই শিক্ষক। ১৫ বছরেরও বেশি শিক্ষকতা করার অভিজ্ঞতা রয়েছে তার। রয়েছে দুটি পোস্ট গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি। যে কর্পোরেট স্কুলে তিনি চাকরি করতেন, লকডাউন জারি হতেই সেই স্কুল কর্তৃপক্ষ ৫০ শতাংশ বেতন কেটে নেয় এর সকল কর্মীর। সেই তালিকায় ছিলেন সুব্বাইআহও।

এপ্রিলে ৫০ শতাংশ বেতন কাটার পরও মে মাসে একটি টার্গেট ধরিয়ে দেওয়া হয় তার হাতে। বেতন কাটার পরেও চাকরি বাঁচাতে হলে এই মাসেই ওই কর্পোরেট স্কুলে কমপক্ষে ৭-৮ জন ছাত্রকে ভর্তি করাতে হবে। সুব্বাইআহ বললেন, গত বছর অনেক ছাত্রকে ভর্তি করিয়েছিলাম। কিন্তু চলতি বছরে করোনার ভয়ে মানুষ বাড়ি থেকেই বের হতে চাইছেন না, স্কুল তো অনেক দূরের কথা। তবে আমি চেষ্টা করেছিলাম। কিন্তু কেউ তাদের বাড়িতে আমাকে ঢুকতে দিচ্ছিলেন না। এরপর স্কুল থেকে আমাকে বলা হয়, মে মাসেই চাকরি ছেড়ে দিতে হবে আমাকে। এজন্য ২০ মে থেকে রাস্তায় কলা বিক্রি করছি।

সুব্বাইআহ জানালেন,শিক্ষক হিসেবে ১৬,৮০০ টাকা বেতন পেতাম আমি। আর এখন কলা বিক্রি করে দৈনিক ২০০ টাকা রোজগার করতে গিয়েই গলদঘর্ম অবস্থা। জীবন এখন কঠিন হয়ে গেছে।

সূত্র:এই সময়

অর্থসূচক/এসএস/এমএস