বিশেষ বিমানে নাইজেরিয়া গেল বেক্সিমকোর রেমডেসিভির

0
159

দেশের অন্যতম শীর্ষ ওষুধ প্রস্তুতকারক বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস লিমিটেডের উৎপাদিত রেমডেসিভির (ব্র্যান্ডনাম বেমসিভির) নিয়েছে আফ্রিকান দেশ নাইজেরিয়া।করোনায় আক্রান্ত দেশটির উচ্চ পদস্থ এক কর্মকর্তার চিকিৎসার জন্য বিশেষ বিমান পাঠিয়ে ১১ শিশি (Vial)বেমভির নিয়ে গেছে তারা।


অর্থসূচকে প্রকাশিত পুঁজিবাজার ও অর্থনীতির গুরুত্বপূর্ণ স খবর পাওয়া যাচ্ছে আমাদের ফেসবুক গ্রুপ

Sharebazaar-News & Analysis এ। এতে যোগ দিয়ে সহজেই থাকতে পারেন আপডেট।


কোম্পানি সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে,নাইজেরিয়া সরকারের একজন উর্ধতন কর্মকর্তা করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গুরুতর এই রোগীর চিকিৎসার জন্য দেশটির ন্যাশনাল এজেন্সি ফর ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অ্যান্ড কন্ট্রোল এর মহাপরিচালক গত ৪ জুন বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসকে ১১ ভায়াল রেমডেসিভির সরবরাহের অনুরোধ জানিয়ে একটি চিঠি পাঠায়।

ওই চিঠির প্রেক্ষিতে বেক্সিমকো ফার্মা অনুমতি চেয়ে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের কাছে একটি আবেদন করে। মানবিক কারণে অধিদপ্তর এই ওষুধ রপ্তানিতে অনাপত্তি দিলে তা নাইজেরিয়ান কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে দেওয়া হয়।

এর প্রেক্ষিতে নাইজেরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী জিওফ্রে ওনিয়ামা গতকাল শুক্রবার (৬ জুন)গভীর রাতে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.এ কে আবদুল মোমেনকে ফোন করেন।ওষুধ সংগ্রহের জন্য একটি বিশেষ বিমান (Chartered Plane)পাঠালে সেটির ঢাকায় অবতরণের বিষয়ে অনুমতিসহ সার্বিক সহযোগিতার জন্য অনুরোধ করেন।

নাইজেরিয়ার রাজধানী আবুজা থেকে রওনা দিয়ে বিমানটি জেদ্দা হয়ে রোববার বিকেল ৫টায় শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করে এবং ওষুধ সংগ্রহ করে বিমানটি অল্প সময়ের মধ্যে নাইজেরিয়ার উদ্দেশে বিমানবন্দর ত্যাগ করে।

জানা যায়, এ সময় বেমসিভিরের পাশাপাশি কিছু পিপিই ও অন্যান্য চিকিৎসা সামগ্রী স্যাম্পল হিসেবে দেওয়া হয় তাদের।

জানা গেছে, ওসব ওষুধ ও চিকিৎসাসামগ্রির মানে সন্তুষ্ট হলে নাইজেরিয়ার সরকার বাংলাদেশ থেকে বাংলাদেশ থেকে আমদানি করতে চায়।

এদিকে  ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যের সরকার বাংলাদেশের আরেকটি বড় ওষুধ কোম্পানি এসকেএফ ফার্মার কাছ থেকে তাদের উৎপাদিত রেমডেসিভির (ব্র্যান্ড নাম রেমভির) আমদানি করার আগ্রহ দেখিয়েছে।