ভৈরবে আরও ১৭ জন আক্রান্ত, মৃত ব্যবসায়ীর রিপোর্ট পজেটিভ

মোস্তাফিজ আমিন, স্টাফ রিপোর্টার, ভৈরব॥

0
194

কিশোরগঞ্জের ভৈরবে নতুন করে আরও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে দুইশতে। এ ছাড়াও পুরাতন পাঁচজনের আবারও প্রতিবেদন পজেটিভ এসেছে।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার শহরের আমলাপাড়া এলাকায় উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া মাছ ব্যবসায়ী উত্তম কুমার দেবনাথের (৬০) প্রতিবেদন পজেটিভ এসেছে। এ নিয়ে এখানে করোনা শনাক্ত হয়ে মারা গেলেন ৪জন।

আজ শনিবার সকালে এইসব তথ্য জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ডা: বুলবুল আহমেদ।

এদিকে ঈদের পর আবারও ভৈরবে করোনাভাইরাস শনাক্ত এবং মৃতের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় উপজেলা প্রশাসন গতকাল শুক্রবার থেকে আগামী ২০ জুন শনিবার পর্যন্ত ১৫ দিনের জন্য এখানকার সকাল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে।

এই সময়ে ওষুধ ও কাঁচামালের দোকান দোকান ছাড়া সব বন্ধ থাকবে। তবে ধান-চালের আড়ৎ সকাল ১০টা থেকে ৪টা এবং পেঁয়াজ-রসুনের আড়ৎ সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

এইসব তথ্য জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লুবনা ফারজানা। তিনি আরও জানিয়েছেন, নতুন শনাক্তের কারণে বেশ কিছু এলাকা লকডাউনসহ ওই এলাকার আশে পাশের মানুষজনের চলাচল সীমিত করে গণবিজ্ঞপ্তি জারী করা হয়েছে।

আজ শনিবার থেকে লকডাউন ও চলাচল সীমিত করা এলাকাগুলি হলো-কমলপুর গাছতলাঘাট কাদের মিয়ার বিল্ডিং (কমলপুর মাদ্রাসার বিপরীতে), ভৈরব বাজারে মা বাবা ভবন (ছবিঘর কমপ্লেক্সের পিছনে), বঙ্গবন্ধু স্মরণীতে বাটা শো রুমের ৩য় তলা, বঙ্গবন্ধু স্মরণীতে এপেক্স শো রুমের ৪র্থ তলা, ভৈরবপুর উত্তরপাড়া শানু মিয়ার বিল্ডিং ৩য় তলা (রফিকুল ইসলাম মহিলা কলেজের পূর্ব পাশে)।

চন্ডিবের মধ্যপাড়ার শাহাদাৎ আলীর বাড়ি, ঘোড়াকান্দার মালিক ভরসা বিল্ডিং, কমলপুর বাসস্ট্যান্ড মরহুম গিয়াস উদ্দিন (সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান) এর বাড়ি, ভৈরবপুর মধ্যপাড়া মনির ভবন, ঘোড়াকান্দা বউবাজার এর হাজী সেন্টু মিয়ার বাড়ির ভাই ভাই বিল্ডিং, কমলপুর পশ্চিমপাড়া হাজী শামসুদ্দিন আহমেদের বাড়ি (ঈদগাহের পাশে), ভৈরবপুর মধ্যপাড়া আলী হাজীর বাড়ি (মডেল স্কুলের সামনে)।

চন্ডিবের হিরণ মিয়ার বাড়ি (মির্জা সুলায়মান মিয়ার বাড়ির সামনে), চন্ডিবের হাজী রবিউল্লাহর বাড়ি, ভৈরব বাজারের আব্দুল মোমেন মিয়ার বাড়ি, ভৈরব রেলওয়ে কলোনীর জসিম উদ্দিনের বাসা, শিমুলকান্দির মধ্যেরচরের দ্বীন ইসলামের বাড়ি, ভৈরব বাজারের রাণীবাজারের শাহী মসজিদের সাথের রতন রায় ভবন ও ভৈরবপুর দক্ষিণপাড়া হেলাল টাওয়ার।