বিদ্যুৎ বিভ্রাটে নষ্ট ১৫ কোটি টাকার আইসক্রিম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

0
147

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের জেরে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ের মূল্য দিতে হল ভারতের আইসক্রিম ব্যবসায়ীদের। গত এক সপ্তাহে কলকাতা ও এর আশপাশের এলাকায় নষ্ট হল ১৫ কোটি টাকার আইসক্রিম।

ইন্ডিয়ান আইসক্রিম ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন (আইআইএমএ) এর পক্ষ থেকে সম্প্রতি জানানো হয়েছে, আইসক্রিম উৎপাদক, ডিলার ও খুচরা বিক্রেতারা বিদ্যুতের উপর নির্ভরশীল। ঘূর্ণিঝড়ের জেরে বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে তাদের বিপুল পরিমাণ ক্ষতি হয়েছে। তাদের হিসাব অনুযায়ী, কলকাতার এই বিদ্যুৎ বিপর্যয়ে নষ্ট হয়েছে প্রায় ১৫ কোটি টাকার আইসক্রিম।

ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের তাণ্ডবে কলকাতার অধিকাংশ এলাকায় চরম বিদ্যুৎ বিপর্যয় দেখা দেয়। দুর্যোগ কেটে যাওয়ার ৫ দিন পরেও বহু অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক হয়নি। আইআইএমএ এর দেওয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, কলকাতা শহরে প্রায় ৩০ হাজার আইসক্রিমের দোকান রয়েছে এবং ডিস্ট্রিবিউটর রয়েছেন প্রায় ৫০০ জন। প্রতিটি দোকান গড়ে ৫ হাজার টাকা মূল্যের আইসক্রিম রাখে। ডিস্ট্রিবিউটরদের প্রত্যেকের গুদামে থাকে দিনপ্রতি ৪০ হাজার থেকে ৫০ হাজার টাকার আইসক্রিম। এ ছাড়াও শহরের রাস্তায় ঘুরে বেড়ানো আইসক্রিম বিক্রির ঠেলাগাড়ির জন্য বরফ দরকার হয়। বিদ্যুৎ সংকটে ফ্রিজার কাজ না করায় এবং বরফের সরবরাহ বন্ধ হওয়ায় বিপুল পরিমাণ আইসসক্রিম নষ্ট হয়ে গেছে।

কলকাতা ছাড়াও এর আশপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক না হওয়ায় বিরাট ক্ষতির মুখে পড়েছেন আইসক্রিম ব্যবসায়ীরা। জনপ্রিয় একটি আইসক্রিম উৎপাদক সংস্থার ম্যানেজিং ডিরেক্টর গৌরব খেমানির দাবি, হাওড়ার ধূলাগড়ে আমাদের কারখানায় দীর্ঘদিন বিদ্যুৎ সংযোগ আসেনি। স্টক সংরক্ষণের জন্য প্রতিদিন ৭০হাজার টাকা খরচ করে ডিজেল জেনারেটর চালাতে হয়েছে। আমরা প্রতিদিন ৫০ হাজার লিটার আইসক্রিম উৎপাদন করি। কিন্তু বিদ্যুতের অভাবে উৎপাদন বন্ধ রাখতে হয়েছে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

অর্থসূচক/এসএস/কেএসআর