হাইব্রিড রিকন্ডিশন্ড গাড়ির শুল্ক কমানোর প্রস্তাব

0
138

Don_2হাইব্রিড প্রযুক্তির রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানির সুযোগ চেয়েছে বাংলাদেশ রিকন্ডিশন্ড ভেহিক্যালস ইম্পোর্টার্স অ্যান্ড ডিলার্স অ্যাসোসিয়েশন (বারভিডা)। আর এ জন্য তারা হাইব্রিড প্রযুক্তি সম্পন্ন রিকন্ডিশন্ড গাড়ি আমদানিতে নতুন গাড়ির সমান শুল্ক করার প্রস্তাব করেছে ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর সোনারগাও হোটেলে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের পরামর্শক কমিটির ৩৫ তম সভায় বারভিডার সভাপতি হাবিবুল্লাহ ডন এমন দাবি করেন।

হাবিবুল্লাহ বলেন, হাইব্রিড ও রিকন্ডিশন গাড়ি আমদানির ক্ষেত্রে নতুনের মতো একই হারে শুল্ক দিয়ে আমদানি করা গেলে দেশের রাজস্ব আয় আরও বেড়ে যাবে।

প্রসঙ্গত পেট্রল বা ডিজেলচালিত আড়াই হাজার সিসির হাইব্রিড প্রযুক্তির নতুন গাড়ির শুল্ক হার মাত্র ৬১ শতাংশ। অথচ একটি রিকন্ডিশন্ড গাড়ির শুল্কের পরিমাণ ৪৫১ শতাংশ।

বাড়ভিডার তথ্য মতে জাপানে তৈরি হাইব্রিড রিকন্ডশিন্ড গাড়ি নতুন গাড়ির প্রায় অর্ধেক দামে আমদানি করা সম্ভব। কিন্তু মাত্রাতিরিক্ত শুল্কের কারণে তা সম্ভব হচ্ছে না। তবে নতুন গাড়ির মতো এই গাড়িতে শুল্ক হ্রাস করা হলে তা দেশের মানুষের সামর্থ্যের মধ্যে বিক্রি করে জ্বালানি সাশ্রয় ও পরিবেশ রক্ষার উদ্দেশ্য সফল হবে।

এদিকে আমদানির ক্ষেত্রে গাড়ির ইঞ্জিন ক্ষমতা (সিসি) অনুযায়ী শুল্ক নির্ধারণের প্রক্রিয়াটি পুনর্বিন্যাস করা দাবি জানান তিনি।

এ সময় মাইক্রোবাস আমদানিতে শুল্ক প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, মাইক্রোবাস বিলাসিতার জন্য কেউ ব্যবহার করে না। এ গাড়িগুলো সাধারণত অ্যাম্বুলেন্স, শিক্ষার্থী বহন, পর্যটন শিল্প ও কারখানার কর্মী বহনে ব্যবহৃত হয়। তাই জনস্বার্থে এই গাড়ির আমদানিতে এক হাজার ৮০০ সিসি পর্যন্ত ৩০ শতাংশ ও এর চেয়ে বেশি সিসির গাড়ি আমদানিতে ৬০ শতাংশ শুল্ক প্রত্যাহার করা উচিত।

সংগঠনটি এনবিআরের কাছে প্রস্তাব করেছে, দুই হাজার থেকে দুই হাজার ৭৫০ সিসির গাড়ির আমদানি শুল্ক ৪৫২ শতাংশের পরিবর্তে ৩৭২ শতাংশ, দুই হাজার ৭৫১  থেকে চার হাজার সিসির গাড়িতে ৬০৮ শতাংশের পরিবর্তে ৪৫২ শতাংশ ও চার হাজার সিসির বেশি যে কোনো গাড়ি আমদানিতে  ৮৪২ শতাংশের পরিবর্তে ৬০৮ শতাংশ নির্ধারণের।

গাড়ি আমদানি শুল্কের ক্ষেত্রে ইঞ্জিনের ধারণ ক্ষমতার পরিমাপ পুনর্বিন্যাসের দাবি করে তিনি বলেন, বর্তমানে গাড়ি আমদানিতে এক হাজার ৫০১ সিসি হতে দুই হাজার ৭৫০ সিসি পর্যন্ত  তিনটি পর্ব নির্ধারিত আছে। এক হাজার ৫০১ সিসি গাড়ির আমদানিতে শুল্ক হার অনেক বেশি হওয়ায় এর চেয়ে বেশি সিসির গাড়ি আমদানি প্রায় বন্ধ হয়ে আছে। তাই দেড় হাজার সিসির গাড়ির আমদানির ওপর চাপ কমিয়ে অন্যান্য গাড়ি আমদানিতে ৫টি পর্ব করে সম্পূরক শুল্ক হ্রাস করার পরামর্শ দেন তিনি।

এইচকেবি/