৩০ হাজারে গর্ভের সন্তান বিক্রি

0
90
গর্ভের সন্তান বিক্রি- প্রতীকী ছবি
গর্ভের সন্তান বিক্রি- প্রতীকী ছবি
গর্ভের সন্তান বিক্রি- প্রতীকী ছবি

অভাবের তাড়নায় গর্ভাবস্থায় সন্তান ‘বিক্রি’র অভিযোগ নিয়ে তুমুল হইচই হল মালদহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সোমবার সকালে এক মহিলার শিশুপুত্র হওয়ার পরে ঘটনাটি ঘটেছে। ওই প্রসূতির নাম রুমা পাল। রুমাদেবীর বাবা মনোহর শর্মা ও মা মমতা দেবী হাসপাতালে গিয়ে সদ্যোজাত নাতিকে দেখার পরে আচমকা ওই অভিযোগ তুললে শোরগোল পড়ে যায়। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

মমতা দেবী জানান, জামাইয়ের কাছে শুনতে পাই, রুমা ৩০ হাজার রুপিতে প্রতিবেশী মিঠুন হালদারের গর্ভের সন্তানকে বিক্রি করে দিয়েছে।

সূত্র জানায়, বিষয়টি নিয়ে হাসপাতালে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীরা কর্তৃপক্ষকে খবর দেন। হাসপাতালের ডেপুটি সুপার পুলিশকে জানান। পরে হাসপাতাল সুপারের লিখিত অভিযোগ পেয়ে প্রসূতির স্বামী, শাশুড়ি সহ বাবা-মাকে জেরা শুরু করেছে পুলিশ। ওই ঘটনার পর সদ্যোজাত শিশুটিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নিজেদের হেফাজতে রেখেছে। যাঁকে সন্তান বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে তিনি অবশ্য দাবি করেছেন, “সন্তান কেনাবেচার কোনও প্রশ্নই নেই। আমার কোনও সন্তান নেই, তাই আমি কেবল ওই দম্পতির সন্তানের দায়িত্ব পালন করব, এটা বলেছিলাম।”

মালদহের পুলিশ সুপার রূপেশ কুমার বলেন, “ঘটনাটি জটিল। তবে গর্ভের সন্তান বিক্রি করে দেওয়া হয়েছিল এমন লিখিত অভিযোগ মেয়ের পরিবারের তরফে এখনও কেউ জানাননি। কিন্তু হাসপাতাল সুপারের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।”

মালদহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ডেপুটি সুপার জ্যোতিষচন্দ্র দাস জানান, কোথাও একটা গোলমাল রয়েছে। তিনি বলেন, “প্রসূতিকে প্রতিবেশী এক মহিলার নামে ভর্তি করানো হয়েছে। সে জন্যই সন্দেহ দৃঢ় হয়েছে। পুলিশকে সবই খতিয়ে দেখতে বলা হয়েছে।”

এস রহমান/