হকার নীতিমালা প্রণয়নের দাবি

0
78

হকার্স ফেডারেসনহকারদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা রেখে আলাদা হকার নীতিমালা প্রণয়নের জন্য সরকারের কাছে দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশন ও বাংলাদেশ ছিন্নমূল হকার্সলীগ।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশন ও বাংলাদেশ ছিন্নমূল হকার্সলীগের যৌথ উদ্যোগে হেফাজত ইসলাম ও জামায়াতের তাণ্ডবের ১ বছর ফূর্তি উপলক্ষে এক মানববন্ধনে সংগঠনের নেতারা এ দাবি জানান।

এ সময় বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশনের সভাপতি এম. এ. কাশেম বলেন, গত ২০ বছরে কোনো সরকারই হকারদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করেনি। হকারদের পুনর্বাসন না করে বরং গণঅভিযানে তাদের উচ্ছেদ করা হয়েছে। হকারদের পুনর্বাসন না করে উচ্ছেদ করা যাবে না। আর যারা এর বিরোধীতা করে তাদের বিচার করতে হবে। হকারদের ক্ষতি করলে কাউকে আর রাজপথে থাকতে দেওয়া হবে না।

তিনি বলেন, গত বছরের মে মাসে হেফাজত ও জামায়াতের তাণ্ডবে হকারদের প্রায় ১২ কোটি ৬৯ লাখ ১৬ হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে। হেফাজত ইসলাম ও জামায়াতের তাণ্ডবের ১ বছর পূর্তি হলেও এখনও এই ক্ষতিপূরণ দেওয়া হয়নি, পুনর্বাসনের ব্যবস্থাও করা হয়নি। বরং দিনের পর দিন হকারদের উচ্ছেদ করা হচ্ছে।

এম. এ. কাশেম বলেন, হকাররা নিম্ন আয়ের মানুষ। তাদের থেকে রাজস্ব নেওয়া বন্ধ করতে হবে। ফুটপাতের হকারদের কাছ থেকে সরকারের রাজস্ব নেওয়া বন্ধ করতে হবে। ১৯৯৯ সালে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ অনুযায়ী ঢাকা সিটি করপোরেশন কর্তৃক হকারদের জন্য বরাদ্দকৃত ৮টি স্থান হকারদের নিকট ফিরিয়ে দিতে হবে।

ঢাকা সিটি করপোরেশনের বর্তমান প্রশাসকের নির্দেশ বাস্তবায়ন এবং গত বছরের ৫ মে হেফাজত ও জামায়াত ইসলামের তাণ্ডবে ক্ষতিগ্রস্থ হকারদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যবস্থা করার দাবি জানান বক্তারা। এ সময় তারা হেফাজত ও জামায়াতের তাণ্ডবের সাথে জড়িত সকল আসামিদের গ্রেপ্তার ও শাস্তির দাবি জানান।

বাংলাদেশ হকার্স ফেডারেশনের সভপতি এম. এ. কাশেমের সভাপতিত্বে এ সময় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারণ-সম্পাদক হারুন-উর-রশিদ, আবুল হোসইন, খোকন মজুমদার, জাহাঙ্গীর জমাদার, আরিফ চৌধরী, শেখ মোফাজুল হোসেন, মো. খলিল, সাইজ উদ্দিন, আজহারুল ইসলাম, নির্মল দাস ও ফিরোজ আলম প্রমুখ।

জেইউ/এ এস