২০০ পেরিয়েছে বাংলাদেশ

0
85

রাওয়ালপিণ্ডিতে সিরিজের প্রথম টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ এবং পাকিস্তান। টসে হেরে ব্যাটিং করছে বাংলাদেশ। টেস্ট ক্যারিয়ারে মোকাবিলা করা দ্বিতীয় বলেই স্লিপে ক্যাচ দিয়ে ফিরেছেন সাইফ হাসান। শাহিন আফ্রিদির বলে আসাদ শফিককে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান তিনি।

এরপরের ওভারে ফিরে গেছেন তামিম ইকবাল। মোহাম্মদ আব্বাসের বলে লেগ বিফোর উইকেটের শিকার হয়ে ফিরে যান তামিম (৩)। শুরুতে আম্পায়ার আউট না দিলে রিভিউ নিয়ে তামিমকে বিদায় করেন পাকিস্তানের অধিনায়ক। কয়েকদিন আগে বিসিএলে ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকানো তামিম এই ইনিংসে করেন ৩ রান।

তিন রানের মধ্যে দুই উইকেট পড়ার পর নাজমুল হোসেন শান্তর সঙ্গে ৫৯ রানের জুটি গড়েন অধিনায়ক মুমিনুল হক। ব্যক্তিগত ৩০ রানে শাহিন আফ্রিদির বলে ফিরে যান তিনি।

প্রথম সেশনে তিন উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ। একাই লড়াই চালিয়ে গিয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত। কিন্তু লাঞ্চ বিরতির পর প্রথম ওভারেই ফিরে যান শান্ত। মোহাম্মদ আব্বাসের দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। আব্বাসের ওভারের শেষ বলটি খোঁচা দিলে উইকেটরক্ষকের গ্লাভসে চলে যায় বল।

শান্ত ফিরে যাওয়ার খানিক পরেই মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান শাহিন শাহ আফ্রিদির বেশ বাইরের বল পয়েন্ট দিয়ে খেলতে গিয়ে আসাদ শফিককে ক্যাচ দেন। চারটি চারে তার ব্যাট থেকে আসে ৪৮ বলে ২৫ রান। মাহমুদউল্লাহ ফেরার পর বাংলাদেশকে টেনেছেন মোহাম্মদ মিঠুন ও লিটন দাস। ষষ্ঠ উইকেটে তারা গড়েছেন ৫৪ রানের জুটি।

বেশ দ্রুতই রান তুলছিলেন তারা। লিটন ৩৩ রান করে হারিস সোহেলের বলে এলবিডব্লিউ হলে এই জুটি ভাঙে। এরপর তাইজুলকে ইসলামকে নিয়ে চা পানের বিরতিতে যান মোহাম্মদ মিঠুন। চা-পানের বিরতির পর বাংলাদেশকে আর কোনো উইকেট হারাতে না দিয়ে ২০০ রান পার করেছে তাইজুল ইসলাম এবং মোহাম্মদ মিঠুন। দুজনই সাবলীল ব্যাটিং করেছেন।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
বাংলাদেশ: ২/৬ (৭৫ ওভার)