টেলিফোনে আঁড়িপাতা ও নজরদারি ‘অসাংবিধানিক’

nsaযুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা সংস্থা (এনএসএ)-এর টেলিফোনে আঁড়ি পাতা ও নজরদারির মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহের কার্যক্রমকে ‘অসাংবিধানিক’ ঘোষণা করেছে দেশটির একটি আদালত । ওয়াশিংটন ডিসি ফেডারেল আদালতের বিচারক রিচার্ড লিওন সোমবার এক আদেশে বলেন, এনএসএর এই কর্মকাণ্ড ‘অযৌক্তিক’ এবং ‘বেআইনি’। খবব রয়টার্সের ।

প্রতিবেদনে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার (সিআইএ) সাবেক কর্মী এডওয়ার্ড স্নোডেন এই নজরদারির নথি ফাঁস করে দেওয়ার পর এনএসএর এই নিয়মভাঙার বিষয়টি নজরে আসে।

ফাঁস করা নথি থেকে জানা যায়, গত দুই বছরে বিপুল সংখ্যক টেলিফোন নম্বর, ফোন কলের সময় ও তারিখসহ বিভিন্ন তথ্য এনএসএ সংগ্রহ করেছে। এভাবে কয়েক হাজার বার তারা যুক্তরাষ্ট্রের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা আইন লঙ্ঘন করেছে। প্রাতিষ্ঠানিক আইনি সীমাও তারা মানেনি।
যুক্তরাষ্ট্রের আইন মন্ত্রণালয় বলছে, তারা আদালতের আদেশ ও এনএসএর তথ্য সংগ্রহের পদ্ধতি বিশ্লেষণ করে দেখছে।

ল্যারি ক্লেম্যান নামের এক ব্যক্তি এনএসএর কার্যক্রমের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে মামলা করার পর ওয়াশিংটনের ফেডারেল আদালতের এই আদেশ এলো। আদেশে বিচারক বলেন, এভাবে তথ্য খুঁজতে গিয়ে এনএসএ নাগরিকদের ব্যক্তিগত গোপনীয়তা ভঙ্গের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন করেছে।

আদালত এনএসএর নজরদারি কার্যক্রমের ওপর অন্তবর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞা দিলেও সরকারকে আপিলের সুযোগ দিতে তা স্থগিত রেখেছে।

এসআর/এআর