ফরিদপুর জেলা ১৭ ডিসেম্বর শত্রুর কবল থেকে মুক্ত হয়
বৃহস্পতিবার, ২৪শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » ঢাকা

ফরিদপুর জেলা ১৭ ডিসেম্বর শত্রুর কবল থেকে মুক্ত হয়

ফরিদপুর ম্যাপসারাদেশ ১৬ ডিসেম্বর হানাদার মুক্ত হলেও ফরিদপুর জেলা পাকিস্তানি সেনাদের কবল থেকে মুক্ত হয় ১৭ ডিসেম্বর। ফরিদপুরের উত্তর-পূর্ব কোনে খলিল মণ্ডলের হাট থেকে শুরু করে তালুকের চর হয়ে সিএন্ডবি ঘাট পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে পাকিস্তানি সেনা ও তাদের এ দেশীয় দোসরদের সাথে মুক্তিযোদ্ধাদের যুদ্ধ হয় ওই দিন। এক পর্যায়ে পাক বাহিনীকে পরাস্ত করে ফরিদপুরকে শত্রু  মুক্ত করে বাংলার বীর সেনানীরা।

জানা গেছে, ১৭ ডিসেম্বর সকালে যশোর থেকে ফেরার পথে পাকিস্তানি সেনা ও রাজবাড়ীর বিহারী রাজাকাররা ফরিদপুরের উত্তর-পূর্ব আঞ্চলে মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে সম্মুখ যুদ্ধে লিপ্ত হয়। এসময় পদ্মা নদী দিয়ে ক্যাপ্টেন হালিম চৌধুরীর নেতৃত্বে স্বাধীনতাকামী মুক্তি সেনারা এবং স্থল পথে ফরিদপুরের মুক্তিযোদ্ধা  সালাহউদ্দিন, আবুল ফয়েজ, মোকাররম, নিতি ভূষণ সাহা সহ কয়েকশ’ মুক্তিযোদ্ধা উভয় দিক থেকে হামলা চালায় তাদের ওপর। ওই দিন দুপুরের পর পরাস্থ হয় পাকিস্তানি সেনারা, শক্র মুক্ত হয় ফরিদপুর। পরাজিত সেনারা ফরিদপুর পুলিশ লাইনে আত্নসমর্পন করে।

জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আবুল ফয়েজ শাহ নেওয়াজ বলেন, ফরিদপুর মুক্ত দিবসে মুক্তিযোদ্ধাদের প্রত্যাশা এই বিজয়ের মাস ডিসেম্বরে চিহিৃত যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যকর করা।

ফরিদপুর সেক্টর কমান্ডার ফোরামের সভাপতি ও যুদ্ধ চলাকালীন সমায়ের কমান্ডার সালাহউদ্দিন আহমেদ বলেন, যে স্বপ্ন নিয়ে তারা আমাদের একটি ভূখণ্ড ও পতাকা উপহার দিয়েছেন, তার বিনিময়ে শোষণ ও বঞ্চনা মুক্ত সোনার বাংলা গড়ে তুলবে দেশের নতুন প্রজন্ম।

এই বিভাগের আরো সংবাদ