সরকারের বাইরে আরেকটি সরকার থাকলে চলে না: সুরঞ্জিত

0
92
suronjit
ফাইল ছবি

suronjitআওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য এবং আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেছেন, সরকারের বাইরে আরেকটি সরকার থাকলে চলে না। সরকারের কাজ হলো আইন-শৃঙ্খলা ঠিক রেখে সুশাসন নিশ্চিত করা।

এসময় নারায়ণগঞ্জসহ সাম্প্রতিককালের অপহরণের ঘটনা ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড প্রসঙ্গে সরকারের সমালোচনা করেন তিনি।
সোমবার রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউটে নৌকা সমর্থকগোষ্ঠী কর্তৃক আয়োজিত প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সামাদ আযাদের স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সুরঞ্জিত বলেন, ‘সরকারের বাইরে আরেকটি সরকার থাকলে চলে না। যারা অপহৃত হয়েছেন তারা কেউই বিরোধী দলের লোক নন’। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘আইনের কাছে সুবিচারের জন্য যেয়ে যদি অপহৃত হতে হয় তাহলে সুশাসন কোথায়’?

তিনি বলেন, ‘এটা সুস্পষ্টভাবে আইনের শাসনের লঙ্ঘন। আইনের শাসন লঙ্ঘিত হলে গণতান্ত্রিক সরকারের অস্তিত্ব প্রশ্নবিদ্ধ হয়’।
ত্বকী হত্যার সুষ্ঠু বিচার করে এর সাথে জড়িতদের যদি জনসমক্ষে হাজির করা হতো তাহলে আর কোনো অপহরণ ও হত্যার ঘটনা ঘটতো না বলে মনে করেন বর্ষীয়ান এই নেতা।

সুরঞ্জিত বলেন, ‘সরকারের কাজ হলো- আইন-শৃঙ্খলা ঠিক রেখে সুশাসন নিশ্চিত করা। বিচারবহির্ভূত হত্যা, গুম, অপহরণ এসব গণতান্ত্রিক দর্শনের সাথে সাংঘর্ষিক’। এ বিষয়কে অগ্রাধিকার দিয়ে অবিলম্বে যথাযথ ব্যবস্থা নিতে তিনি সরকারকে অনুরোধ জানান।

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুস সামাদ আযাদ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “তিনি ছিলেন একজন আপাদমস্তক রাজনীতিক। আজীবন গণমানুষের পক্ষেই রাজনীতি করেছেন তিনি। একটি অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখতেন তিনি”।

আগের মতো এখন আর আওয়ামী লীগে গণতন্ত্রের চর্চা আছে কি না এমন প্রশ্ন রেখে তিনি বলেন, তাদের (আ. সামাদ আযাদ) সময় আওয়ামী লীগ ছিল একটি সুসংগঠিত গণতান্ত্রিক দল। আর বঙ্গবন্ধু তৃণমূল থেকে আওয়ামী লীগকে সংগঠিত করেছেন। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, আওয়ামী লীগের সেই অবস্থা কি এখন আছে?

তিনি বলেন, ‘সরকার আওয়ামী লীগ নয় বরং আওয়ামী লীগের সরকার। তাই সবার আগে আওয়ামী লীগকে গণতান্ত্রিকভাবে সুসংগঠিত করতে হবে’। দলের মধ্যে গণতন্ত্রের চর্চা না থাকলে আমলাতান্ত্রিক রাজনীতি ঢুকে পড়ে বলে মনে করেন তিনি।

বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি চিত্তরঞ্জন দাস অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন। এতে আরও বক্তব্য রাখেন নগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হাজী মোহাম্মদ সেলিম এমপি, আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান দুর্জয়, প্রজন্মলীগ নেতা হাসিবুল হাসান শান্ত।

এসএসআর/ এআর