মুন্সীগঞ্জ ইতিহাসের মহান এবং গর্বিত ভূ-ভাগ

0
171

মুন্সীগঞ্জ ইতিহাসের মহান এবং গর্বিত ভূ-ভাগ (1)পদ্মা, মেঘনা, ধলেশ্বরী, ইছামতি নদীর দ্বীপ দেশ মুন্সীগঞ্জ। আজকের মুন্সীগঞ্জ কিংবদন্তি ইতিহাসের মহান এবং গর্বিত ভূ-ভাগ।

এই ভূ-ভাগ সু-প্রাচীন চন্দ্র রাজাদের তাম্র শাসনের অঞ্জলী থেকে শুরু করে পাল, সেন, মোঘল, বার ভূইয়াদের কীর্তিত্বে উজ্জ্বল হয়ে একটি স্বাধীন বঙ্গ রাজ্যের রাজধানী বিক্রমপুরের কীর্তিময় অংশ। মুন্সীগঞ্জ তাই বাংলাদেশের জন্য গৌরবের ইতিহাস।

৬টি উপজেলা, ২টি পৌরসভা, ৬৭টি ইউনিয়ন আর ৯৫৭টি গ্রাম নিয়ে ৯৫৪.৯৬ বর্গকিলোমিটারের ঐতিহ্যমণ্ডিত ভূখণ্ড মুন্সীগঞ্জ। ইতিহাসের পাতায় বিক্রমপুর একটি জ্ঞানী তাপস জনের মিলনকেন্দ্র। এখানে জন্মেছে দেশবন্ধু চিত্তরঞ্জন দাস, সাহিত্যিক সৈয়দ এমদাদ আলী, সরোজনী নাইডু, ইংলিশ চ্যানেল বিজয়ী ব্রজেন দাস, বৈজ্ঞানিক জগদিশ চন্দ্র বসু, অতীশ দিপঙ্করের মতো জগৎ বিখ্যাত ব্যক্তি। এমনকি বাবা আদম শহীদের মতো ইসলামী ব্যক্তিত্বের পদচারণা এক কথায় তার প্রচেষ্টার ফসল আজ মুন্সীগঞ্জের ইসলাম বা মুসলমান এলাকা মুন্সীগঞ্জ বিক্রমপুর।

আজকের মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রাচীন বাংলার গৌরবময় স্থান বিক্রমপুরের অংশ। মুন্সীগঞ্জ সে সময়ে ছিল একটি গ্রাম যার পূর্ব নাম ছিল ইদ্রাকপুর। কথিত আছে, মোঘল শাসন আমলে এই ইদ্রাকপুর গ্রামে মুন্সী হায়দার হোসেন নামে একজন ব্যক্তি ছিলেন। তিনি মোঘল শাসকদের দ্বারা ফৌজদার নিযুক্ত ছিলেন। অত্যন্ত স্বজ্জল ও জ্ঞানহিতৈশী মুন্সী হায়দার হোসেনের নামে ইদ্রাকপুরের নাম হয় মুন্সীগঞ্জ। ১৯৪৫ সালে বৃটিশ ভারতের প্রশাসনিক সুবিধার্থে মুন্সীগঞ্জ থানা ও মহকুমা হিসেবে উন্নীত করা হয়। ১৯৮৪ সালের ১ মার্চ মুন্সীগঞ্জ জেলায় রূপান্তরিত হয়।

মুন্সীগঞ্জ জেলা ২৩০২৯ মিনিট থেকে ২৩০৪৫ মিনিট উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০০১০ মিনিট থেকে ৯০০৪৩ মিনিট পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে অবস্থিত।

মুন্সীগঞ্জ সমতল এলাকা নয়। জেলার কিছু কিছু অঞ্চল যথেষ্ট উঁচু যদিও জেলায় কোনো পাহাড় নেই। মুন্সীগঞ্জের বেশির ভাগ এলাকা নিম্ন ভূমি যা বর্ষাকালে পানিতে ডুবে মুন্সীগঞ্জের জলবায়ু সমভাবাপন্ন। তবে আদ্রতা এর অন্যতম বৈশিষ্ট্য। এখানকার জলবায়ু ঋতু বিশেষ পরিবর্তনশীল। এটি বর্ষা প্রধান এলাকা। গ্রীষ্মকালে অনেক স্থান পানি শুন্য হয়ে পড়ে। ঝড় বৃষ্টির প্রকোপও এ অঞ্চলে যথেষ্ট। শীতকালে শীতের তীব্রতা দেশের অন্যান্য স্থানের মতো তত প্রবল নয়। এলাকাটি নাতিশীতোষ্ণ অঞ্চলভুক্ত।

পূর্বে কুমিল্লা মুন্সীগঞ্জের জেলার দাউদকান্দি ও হোমনা উপজেলা, চাঁদপুর জেলার মতলব উপজেলা যা মেঘনা নদীর দ্বারা বিভাজিত। পশ্চিমে শরীয়তপুর ও মাদারীপুর কেরানীগঞ্জ ও দোহার উপজেলা এবং নারায়ণগঞ্জ জেলার বন্দর উপজেলা। দক্ষিণে পদ্মা যার অপর পাশে শরীয়তপুর জেলা।

কেএফ