জাতীয় সঙ্গীত গাইলো লাখো কণ্ঠ

Bijoy_Sohrawardiতিন লাখেরও বেশি মানুষ সমবেত কণ্ঠে গাইলো জাতীয় সংগীত। লাখো মানুষের সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার মাধ্যমে গিনেজ বুকে স্থান করে নিয়েছে। এর আগে প্যারেড গ্রাউন্ডে সবচেয়ে বড় মানব পতাকা উড়িয়ে গিনেজ বুকে স্থান করে নিয়েছিলো বাংলাদেশ।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৪ টা ৩১ মিনিটে সোহাওয়ার্দী উদ্যানে জাতীয় সঙ্গীত গাওয়া শুরু হয়।

এরপরে অনুষ্ঠানে সমবেতদের  শপথ বাক্য পাঠ করানো হয়। শপথ বাক্য পাঠ করান এয়ার ভাইস মার্শাল একে খন্দকার। মুক্তিযুদ্ধ চেতনায় দেশ গড়া ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে সোচ্চার থাকার অঙ্গীকার করা হয়। যারা দেশ বিরোধী তাদেরও বর্জন করারও আহ্বান জানায় তারা। যুদ্ধাপরাধীর বিচার ও সর্ব শক্তি নিয়োগের অঙ্গিকার করে তারা।

একে খন্দকার নবপ্রজন্মের প্রতিনিধি ইমরান এইচ সরকার ও বাধনের কাছে জাতীয় পতাকা হস্তান্তর করেন।

বিজয় ২০১৩ উদযাপন জাতীয় কমিটি, গণজাগরন মঞ্চ, সেক্টর কমান্ডার্স ফোরাম, বিজয় ৪ টা ৩১ মঞ্চ ও মুক্তিযোদ্ধা বাস্তবায়ন কমিটির উদ্যোগে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

এর আগে উদযাপন কমিটি সংসদ ভবনের দক্ষিন প্লাজায় স্থান নির্ধানণ করলেও অনুমতি না পাওয়ায় সোহওয়ার্দী উদ্যানকে বেছে নেওয়া হয়।