পাস করেছে নুসরাত?

প্রতিনিধি

0
117

ফেনীর সোনাগাজীতে অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির মামলা করায় নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয় অধ্যক্ষের অনুসারীরা। এরপর কয়েকদিন মৃত্যুর সঙ্গে লড়ে হার মানে সে। তবে মৃত্যুর আগে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসা কেন্দ্রে দুটি পরীক্ষায় অংশ নেয় নুসরাত। আজ সেই পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

আজ বুধবার প্রকাশিত নুসরাতের ফলাফলে দেখা যায়, যে দুই বিষয়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সে দুই বিষয়ে ফেল করেনি নুসরাত। কুরআন মাজিদ ও হাদিস (বিষয় কোড ২০১ ও ২০২) পরীক্ষায় জিপিএ-৪ পেয়েছে। অন্য বিষয়গুলোতে পরীক্ষায় অংশ না নিতে পারায় রেজাল্ট কার্ডে সেগুলো ফেল দেখাচ্ছে।

সোনাগাজী ইসলামিয়া মাদরাসা থেকে এবার আলিম পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল নুসরাত জাহান (রাফি)। পরীক্ষায় তার রোল নম্বর ছিল ১৪৯৬১৪।

মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা মো. হুসাইন বলেন, সবগুলো পরীক্ষা দিতে পারলে নুসরাত ভালো ফলাফল করতো। লেখাপড়ার প্রতি মেয়েটার কতটা আগ্রহ থেকেই এমন প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পরীক্ষায় অংশ নেয়। দুটি পরীক্ষাও দেয় নুসরাত।

এদিকে পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর নুসরাতের সহপাঠী ও স্বজনরা শোক ধরে রাখতে পারছেন না। বুধবার মাদরাসায় পরীক্ষার ফলাফল জানতে আসা শিক্ষার্থীরা নুসরাতের জন্য কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ সময় উপস্থিত শিক্ষকদের চোখেও নেমে আসে শোকের অশ্রু। সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসায় এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।

উল্লেখ্য, অধ্যক্ষ সিরাজের নামে থানায় যৌন হয়রানির মামলা দিলে গত ৬ এপ্রিল তৃতীয়দিনের মতো আলিম পরীক্ষা দিতে আসলে অধ্যক্ষের অনুসারীরা মাদরাসার সাইক্লোন সেন্টারের ছাদে নিয়ে নুসরাতের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। এতে নুসরাতে ৮০ ভাগ শরীর পুড়ে গেলে ঢামেকের বার্ন ইউনিটে টানা পাঁচদিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে ১০ এপ্রিল মৃত্যুবরণ করে।

নুসরাত হত্যা মামলায় ১৬ জনকে আসামি করে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেয় পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। ফেনীর নারী ও শিশু ট্রাইব্যুনালে এই মামলার শুনানি চলছে।

অর্থসূচক/কেএসআর