পণ্য মজুদে কঠোর ব্যবস্থা নেবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন
রবিবার, ২০শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ
today-news
brac-epl
প্রচ্ছদ » চট্টগ্রাম ও বন্দর

পণ্য মজুদ করলে কঠোর ব্যবস্থা নেবে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসন

chittagong হরতাল অবরোধের অজুহাতে পণ্য মজুদ করে বেশি দামে বিক্রি করা হলে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে ব্যবসায়ীদের হুঁশিয়ার করেছেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক আবদুল মান্নান। রোববার চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে কাঁচা পণ্য ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকদের সঙ্গে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

পেঁয়াজসহ নিত্য পণ্যের মূল্যে হরতাল ও অবরোধের অজুহাতে কয়েকগুণ বেড়ে যাওয়ায় তা  স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের প্রতি আহ্বান জানান। এ সময়  নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বেড়ে যাওয়ায় জনজীবনে এর বিরুপ প্রভাবেব বিষয় তুলে ধরেন ব্যবসায়ীদের  কাছে।

আয়োজিত সভায় তিনি আরও বলেন, বিভিন্ন সীমাবদ্ধতা থাকা সত্বেও বর্তমানে ঢাক-চট্টগ্রাম মহাসড়কে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি ও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। খুব শীঘ্রই পুলিশ পাহারায় কাচাঁ পণ্য পরিবহন ব্যবস্থা করা হবে।

তিনি আরও বলেন, ভারতীয় পেঁয়াজ ৩৫ টাকা এবং চায়না পেঁয়াজ ৩৯ টাকা কেজি দরে আমদানি করে তা কোনো যুক্তিতেই ১২০ থেকে ১৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হতে পারে না । সম্প্রতি সময়ে পেঁয়াজের লাগামহীন দাম এখনি টেনে ধরতে হবে। ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে বিক্রি করার জন্য ব্যবসায়ীদের অনুরোধ জানানো হয়েছে।

সভায় ব্যবসায়ীরা জানান, হরতাল ও অবরোধের কারণে ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যানের বাড়া বেড়ে গেছে চার গুনের মতো । জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চালকরা ট্রাক নিয়ে বের হচ্ছেন না। হরতাল অবরোধ বন্ধ হয়ে গেলে দাম নিয়ন্ত্রণের মধ্যে চলে আসবে বলেও জানান তারা।

ব্যবসায়ীরা বলেন, পেঁয়াজ একটি পঁচনশীল কাচাঁমাল তাই এ পণ্যটি মজুদ করার কোনো সুযোগ নেই বলে জানান।

মত বিনিময় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক সানাউল হক, নির্বাহী ম্যাজিস্টেট আসিফ ইমতিয়াজসহ ব্যবসায়ী সমাজের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম বন্দর দিয়ে পাকিস্তানি ও চায়না পেঁয়াজ আমদানি করায় সর্বোচ্চ মূল্য ৪৫ টাকার মধ্যে হলেও তা পাইকারি বাজারে বিক্রি হচ্ছে ১০০ টাকার উপরে। এমন পরিস্থতিতে গত ১২ তারিখে অতিরিক্ত  জেলা ম্যাজিষ্টেট মো. সাইদুর রহমানের নেতৃত্বে পেঁয়াজের হঠাৎ মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টি তদারকি করতে খাতুনগঞ্জে গেলে ব্যবসায়ীদের তোপের মুখে পড়ে ফিরে আসে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এই বিভাগের আরো সংবাদ