জবিতে সাংবাদিকতা বিভাগের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত

0
109
জবি ভিসি

জবি ভিসিজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষের নবীনবরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিলনায়তনে তা অনুষ্টিত হয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান বলেন, “সাংবাদিকতা অনুসন্ধান ও সাহিত্যের সমন্বয়ে উৎসারিত এবং এর উপস্থাপন সাহিত্য গুণাবলীসম্পন্ন হতে হয়। সাংবাদিকতায় যোগাযোগ বিষয়টি বলার ওপর নির্ভর করে না; বুঝার ওপর নির্ভর করে।”

তিনি আরও বলেন, “দিন দিন পেশাটি প্রকট অবস্থা ধারণ  করছে। সাংবাদিকতা পেশা হলুদ সাংবাদিকতা, অতি সাংবাদিকতা, ড্রোন সাংবাদিকতা, সোস্যাল সাংবাদিকতা, রাজনৈতিক সাংবাদিকতা বিবিধ নামে বিভাজন হয়ে পড়েছে। যে দেশমাতৃকা, জাতি, ধর্ম, সংস্কৃতি ও নৃ-তত্ত্ব সম্পর্কে যে ভালো জানে সেই ভালো সাংবাদিক।” উপাচার্য অচিরেই বিশ্ববিদ্যালয়ের চলচ্চিত্র ও টেলিভিশন বিভাগ খোলার ইচ্ছা প্রকাশ করেন।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক আখতার সুলতানা বলেন, “সাংবাদিকতা বিষয়টি নিজ দায়িত্ব অধ্যায়ন করার পাশাপাশি ডিবেটিং, নাটক ও সাংস্কৃতিকসহ বিভিন্ন সৃষ্টিশীল কাজের সাথে সম্পৃক্ত থাকতে হবে। এ বিষয়ে পড়াশোনার মাধ্যমে নিজেকে তুলে ধরতে হবে।”

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে দৈনিক আমাদের অর্থনীতি পত্রিকার সম্পাদক নাইমুল ইসলাম খান বলেন, “এ বিভাগে পড়াশোনা করলে নিজেকে একজন চৌকস মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা যায়।”

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রয়াত সাংবাদিক এমবিএম মূসার স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এছাড়া বক্তব্য রাখেন গণযোগাযোগ সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক জুনায়েদ আহমদ হালিম ও সহকারী অধ্যাপক মীর মোশারেফ হোসেন।

সভাপতিত্ব করেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. হেলেনা ফেরদৌসী। এ সময় বিভাগের ছাত্র-ছাত্রী, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, আলোচনা শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এমআই/সাকি