সমস্যায় জর্জরিত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিসিক শিল্পনগরী

0
193
বি.বাড়িয়া
ব্রাহ্মণবাড়িয়া ম্যাপ

বি.বাড়িয়াব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর থেকে মাত্র ৫ কিলোমিটার দূরে প্রতিষ্ঠা করা হয় ব্রাক্ষণবাড়িয়া বিসিক শিল্পনগরী। নানাবিধ সুবিধার সহজলভ্যতার কারণে এটি সম্ভাবনাময় শিল্পনগরীতে রুপান্তরিত হওয়ার কথা থাকলেও তা শেষ পর্যন্ত হয়। কয়েক হাজার লোকের কর্মসংস্থান হলেও এখানে রয়েছে নানান সমস্যা।

প্লট সংকট, গ্যাস সংকট, সড়কের বেহাল দশা, বর্জ্য ও পানি নিস্কাশনে ড্রেনেজ সমস্যার মধ্য দিয়েও খুড়িয়ে চলছে এই শিল্পনগরী। এসব সমস্যার সমাধান করলে অর্থনৈতিকভাবে সম্ভাবনাময় এই শিল্পনগরীতে গড়ে উঠতে পারে বিশ্ব মানের শিল্প প্রতিষ্ঠান। ফলে এখানকার উৎপাদিত পণ্য দেশীয় চাহিদা মিটিয়ে বিদেশে রপ্তানি করে বিপুল পরিমাণ বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের পাশাপাশি ব্যাপক কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হতে পারে বলে অভিমত এলাকাবাসীর।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,  ‘ঘরে ঘরে শিল্প গড়, দেশকে কর স্বনির্ভর ’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে ১৯৯৮ সালে প্রায় ২২ একর জমিতে ১৩৭টি প্লট নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বিসিক শিল্পনগরীর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়। শুরুতেই শিল্প উদ্যোক্তাদের প্রতিটি প্লটের বরাদ্দ দেওয়া হয় ৮লাখ ৯০ হাজার টাকায়। ব্যবসায়িক নানান সুযোগ সুবিধার কারণে এক যুগে প্রতিটি প্লটের মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় কোটি টাকায়।

বিসিক এলাকায় একে একে গড়ে উঠেছে ৭১টি শিল্প কারখানা যার মধ্যে চালু রয়েছে ৬৩টি। এখানে রয়েছে অ্যালুমুনিয়াম তৈজসপত্র, আটা, ময়দা, মুড়ি, বিস্কিট, চকলেট, সোডিয়াম সিলিকেট, প্লাষ্টিক সামগ্রীসহ নানা পণ্যের কারখানাএসব কারখানায় বিভিন্ন এলাকার কয়েক হাজার লোকের কর্মসংস্থান হলেও এখানে রয়েছে প্লট সংকট, অভ্যন্তরীণ সড়কের বেহাল দশা, গ্যাস সংকট, বর্জ্য ও পানি নিষ্কাশনের সমস্যা। তাছাড়াও মন্ত্রণালয়ে ফাইল বন্দি হয়ে পড়ে আছে নতুন ৩৫টি উদ্যোক্তার আবেদন। এতে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে নতুন শিল্পোদ্যোক্তাদের শিল্প ইউনিট স্থাপন। অন্যদিকে এলাকাবাসী হারাচ্ছেন শত শত চাকুরির সুযোগ।

বিসিক এলাকায় বর্জ্য ও পানি নিষ্কাশনের সুব্যবস্থা না থাকায় কেমিকেল মিশ্রিত পানি খাল দিয়ে প্রবাহিত হয়ে আবাদি জমিতে গিয়ে ফসল উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।

বিসিক শিল্পনগরীর তরুণ উদ্যোক্তা বিল্লাল হোসেন জানান, নানান সমস্যার পরেও আমরা এখানে খুব কষ্ট করে টিকে আছি। সরকার এই শিল্পে আরও বেশি নজরদারি করলে এবং আমাদের প্লট সংকট, গ্যাস সংকট, সড়কের বেহাল দশা, বর্জ্য ও পানি নিষ্কাশনের সমস্যার দ্রুত সমাধান করলে আমরা  লাভবান হতে পারবো।

বিসিক শিল্পনগরীর সহকারি মহা-ব্যবস্থাপক আব্দুল অদুদ মিয়া বলেন, বিসিক ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রচুর ইন্ড্রাষ্ট্রি হবার সম্ভাবনা আছে। প্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা পেলে বিভিন্ন দেশ থেকে যেসব প্লাষ্টিক সামগ্রী, সোডিয়াম সিলিকেট, তৈজসপত্র আমদানি করা হয় সেসব এই বিসিক শিল্প নগরীতেই উৎপাদন সম্ভব হতো।

 কেএফ