‘গুগল-ফেসবুক ইন্টারনেট জগতের সামন্ত’

0
98
german media tycon

german media tyconলোভের বশে লাভের চিন্তায় পৃথিবীর অধ্যায় বারবার কলঙ্কিত করেছে সাম্রাজ্যবাদীরা। নিজেদের স্বার্থ উদ্ধার এবং সাম্রাজ্যের বিস্তারে সাধারণ মানুষের অধিকার এবং জীবন বিপন্ন করতে বিন্দুমাত্র দ্বিধাবোধ করেনি তারা। হাতি-ঘোড়ার যুগ পেরিয়ে এবার সেই সাম্রাজ্যবাদের অশুভ পদচারণা পরিলক্ষিত হচ্ছে টেক জগতেও। এবারের ফেরাউন নতুন কেউ নয়, বরং সবার পরিচিত এবং বহুল আদৃত গুগল-ফেসবুকের মতো টেক জায়ান্টগুলো।

সম্প্রতি জার্মানির এক মিডিয়া টাইকন প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলোর নামের পাশে এই তকমা লাগিয়ে দিয়েছেন। তার অভিযোগ, উদ্দেশ্যে প্রণেদিত ভাবে গুগল-ফেসবুক ইন্টারনেট সাম্রাজ্য দখলের চেষ্টা চালাচ্ছেন, যেখানে মানুষের প্রাইভেসি বলতে কোন কিছুর অস্তিত্ব থাকবে না। খবর বিবিসির।

ম্যাথিয়াস ডফনার নামের এই ব্যক্তি ইউরোপের বৃহত্তম মিডিয়া গ্রুপ এক্সেল স্প্রিংগারের প্রধান নির্বাহী। ইউরোপজুড়ে এক্সেলের প্রায় দুই শতাধিক সংবাদ প্রকাশনা রয়েছে।

জার্মান দৈনিকে প্রকাশিত এক নিবন্ধে ম্যাথিয়াস অভিযোগ করেন, গুগলের প্রতিষ্ঠাতা ল্যারি পেজ এমন জগতের স্বপ্নে বিভোর যেখানে মানুষের ব্যক্তিগত গোপনীয়তার মতো অধিকার নিলামে বিক্রিত হবে, কিন্তু উচ্চবাচ্য করার সুযোগ থাকবে না।

তিনি বলেন, ফেসবুকের মতো যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে মানুষের ব্যক্তিগত তথ্য কিভাবে নিরাপদ রাখা হয়, তা আমি বুঝতে পারি না। তারা কি এইসব তথ্য বিকারগ্রস্ত সরকারি গোয়েন্দাদের সরবরাহ করছে না?

তিনি আরও বলেন, বর্তমানে ইন্টারনেট জগতে মনোপলি নেটওয়ার্ক তৈরি করা হয়েছে। গুগলের মতো সার্চ ইঞ্জিনগুলো তথ্য প্রদানের ক্ষেত্রে নিজেদের পচ্ছন্দকে অগ্রাধিকার দিচ্ছে, যা কোন মতেই গ্রহণযোগ্য নয়।

সবশেষে ম্যাথিয়াস এই ফ্যান্টাসি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য টেক জায়ান্টগুলোর হর্তা-কর্তাদের আহ্বান জানিয়েছেন। তার মতে, এই ধরনের চর্চা পৃথিবীতে কখনো টিকতে পারেনি এবং পারবে না।