নওগাঁয় বৃদ্ধ বাবা মাকে তাড়িয়ে দিল পাষাণ্ড দুই ছেলে

0
48
নওগাঁ

নওগাঁনওগাঁর রানীনগর উপজেলার একডালা ইউনিয়নের গুয়াতা গ্রামে সম্পত্তির লোভে  বৃদ্ধ বাবা মাকে মেরে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে তাদের পাষণ্ড দুই ছেলে। শুধু বাড়ি থেকে বের করেই ক্ষান্ত হয়নি তারা। বৃদ্ধ বাবার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দিয়েও হয়রানী করছে। হতভাগ্য এই বাবা মা গত দেড় মাস ধরে গ্রামের অন্যের বাড়িতে মানবেতর দিনযাপন করছেন।

বিষয়টির শান্তিপূর্ণ মিমাংসা ও বাবা মাকে বাড়িতে তুলে দেওয়ার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছেন গ্রামের মাতবর প্রধান ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান।

এলাকাবাসি ও স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন জানান, গুয়াতা গ্রামের মৃত বাহার আলী সরদার তার ছেলে আব্দুল খালেক ওরফে বুলু একাধিক বিয়ে করায় বাহার আলী, বুলুর ৩ ছেলের নামে বাড়ির ও আবাদি কিছু জমি লিখে দিয়ে যান। দাদার সম্পত্তি পেয়ে বুলুর বড় ছেলে উজ্জল হোসেন (৩৫) ও মেজো ছেলে ফিরোজ হোসেন সরদার (৩০) বিয়ে করে স্ত্রী সন্তান নিয়ে একই বাড়িতে আলাদা থাকেন। বুলু সরদার ও তার স্ত্রী বেলী বেগম থাকেন ছোট ছেলে রুবেল হোসেন (২০) সরদার নিয়ে।

গত দেড় মাস আগে পারিবারিক ঝগড়া বিবাদের জের ধরে দুই ছেলে উজ্জল হোসেন ও ফিরোজ হোসেন সরদার বাবা মা ও তাদের ছোট ভাই রুবেলকে মেরে আহত করে রাতের আঁধারে বাড়ি থেকে বের করে দেয় । তাদের দাবি এই বাড়িতে বাবা মার কোন জায়গা নেই।  ছোট ভাই রুবেল এর জায়গা থাকলেও তা আছে প্রতিবেশিদের দখলে। যদিও বুলু দাবি করেছেন ওই বাড়ির ভেতরে তার বাবা  ৩ নাতিকে সম্পত্তি লিখে দেওয়ার পরও প্রায় ৪ শতক জায়গা রয়েছে।

গৃহহারা এই বৃদ্ধ দম্পতি গ্রামের বিভিন্ন জনের বাড়িতে মানবেতর অবস্থায় দিনযাপনের এক পর্যায়ে এই দম্পতিকে বাড়িতে তুলে দেওয়ার জন্য গ্রামের প্রধান মাতব্বররা শালিস ডাকেন। কিন্তু তাদের দুই ছেলেকে কোনভাবেই রাজি করতে না পারায় মাতব্বর প্রধানরা ব্যর্থতা শিকার করেছে। একইভাবে ব্যর্থ হন ওই গ্রামের বাসিন্দা একডালা ইউপি চেয়ারম্যানও। চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন জানান, ছেলেরা বাবা মাকে বাড়ি তুলতে কিছুটা নমনীয় হলেও উজ্জলের  এক মামার প্ররোচনার কারণে শেষ পর্যন্ত তারা বাবা মাকে বাড়িতে না তোলার সিদ্ধান্তে অটল থাকে। এ ব্যাপারে প্রতিকার পাওয়ার জন্য গৃহহারা ওই দম্পতিকে থানায় অভিযোগ করার পরামর্শ দিয়েছি।

ছেলে উজ্জল হোসেন জানান, বাড়িতে বাবা মার কোন জায়গা নেই। কাজেই তারা এই বাড়িতে থাকতে পারবেনা।

গৃহহারা বুলু জানান, ওই বাড়িতে আমার প্রায় ৪ শতক জায়গা আছে। অথচ অন্যের প্ররোচনায় ছেলেরা অন্যায় ভাবে আমাদের বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। আমি বিচার চেয়ে থানায় অভিযোগ করেছি। তবে পুলিশ এখনও কোন ব্যবস্থা নেয়নি।

এ ব্যাপারে রানীনগর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মাসউদ চৌধুরি জানান, অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি উজ্জলকে আটক করে ছিলাম। তারা আপোষ করে বাবা মাকে বাড়ি তুলে নেবে  এই শর্তে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। কিন্তু তা না করে উল্টো বাবাসহ অন্যদের জড়িয়ে উজ্জলের শালা ডাকাতি ও মারপিট সংক্রান্ত মামলা করেছে আদালতে। দ্রুত এই ঘটনার তদন্ত করে বাবা মাকে বাড়িতে উঠানোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানান ওসি।

কিউএমএসটি/সাকি