রেজওয়ানার স্বামী অপহরণে সরকার জড়িত: আনু মুহাম্মদ

0
32
আনু স্যার
আনু মুহাম্মদ (ফাইল ছবি)
আনু স্যার
ফাইল ফটো

বেলার নির্বাহী পরিচালক রেজওয়ানার স্বামী আবু বক্কর সিদ্দিককে অপহরণের সাথে সরকার জড়িত রয়েছে বলে মন্তব্য করলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবীদ আধ্যাপক আনু মুহাম্মদ।

বৃহস্পতিবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ‘বিচার বর্হিভূত খুন , গুম , অপহরণ ও হয়রানি বন্ধ কর, আবু বক্কর সিদ্দিককে উদ্ধার কর ও নাগরিক নিরাপত্তা নিশ্চিত কর’ শীর্ষক প্রতিবাদ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

এ সময় তিনি বলেন, সরকার যদি বলে যে তারা আবু বক্কর সিদ্দিককে অপহরণের সাথে জড়িত নয় তাহলে তাকে উদ্ধার করে তা প্রমাণ করতে হবে।

প্রতিবাদ সমাবেশটি আয়োজন করে লেখক–শিল্পী, সংস্কৃতিকর্মী-নাগরিক ও পেশাজীবী সমাজ।

আনু মুহাম্মদ বলেন, বর্তমানে দেশে এক ভয়াবহ পরিস্থিতি বিরাজ করছে। দেশে কোনো মানুষই এখন নিরাপদ নয়। প্রতিদিনই বিভিন্ন পেশার মানুষ গুম, খুন এবং অপহরণ হচ্ছে। সরকারি দলের লোকেরাও এই মুহূর্তে নিরাপদ নয়। তারাও নিজেদের  মধ্যে মারামারি খুনাখুনি করছে।

স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রির বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, কিছুদিন আগে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেছিলেন গুম বলে কিছুই হয়নি। এর মাধ্যমেই প্রমাণিত হয় এর সাথে তারা জড়িত রয়েছে। সরকার যদি চায় খুনিদের ধরা সময়ের ব্যাপার নয়।

পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, দেশের মানুষ টাকা ‍দিয়ে এমন বাহিনী পালতে চায় না যারা জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পারে না।

তিনি বলেন, মানুষের ট্যাক্সের টাকা দিয়ে যাদের ভরণপোষণ চালানো হয় সেই পেটোয়া বাহিনীই এখন জনগণের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে।

আনু মুহাম্মদ বলেন, রেজওয়ানা সিদ্দিকী ভূমিদস্যুদের বিরুদ্ধে কথা বলায় তার স্বামীকে অপহরণ করা হয়েছে। এদেশে সত্যের পথে যারাই অবস্থান নিয়েছে তাদেরই এমন পরিণতি হয়েছে।

এ সময় তিনি অবিলম্বে আবু বক্কর সিদ্দিককে উদ্ধারের জন্য সরকারের কাছে জোর দাবি জানান।

উল্লেখ্য, গতকাল ঢাকা-নারয়ণগঞ্জ রুটে পরিবেশ আন্দোলনের নেত্রী রেজওয়ানা সিদ্দিকের স্বামী আবু বক্কর সিদ্দিককে অপহরণ করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এখন পর্যন্ত তার কোনো সন্ধান মেলেনি।

প্রতিবাদ সমাবেশে সংহতি প্রকাশ করে আরও বক্তব্য রাখেন গণসংহতি আন্দোলনের আহবায়ক জুনায়েদ সাকী, সমাজবিজ্ঞানী স্বপন আদনান, নিউ এজের সম্পাদক নুরূল কবির, প্রকৌশলী মাহবুব হোসেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক আহমেদ কামাল প্রমুখ।

জেইউ/সাকি