তৃতীয় বস্তিশুমারি শুরু ২৫ এপ্রিল, চলবে ২ মে পর্যন্ত

0
38

dhakaবস্তিবাসীদের জীবনমানের উন্নয়নে দেশে তৃতীয়বারের মতো শুরু হচ্ছে বস্তিশুমারি। বস্তিশুমারি ও ভাসমান লোকগণনা ২০১৪ এর এই কার্যক্রম ২৫ এপ্রিল থেকে ২ মে পর্যন্ত দেশের সকল শহরাঞ্চলে চলবে।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর আগারগাঁও পরিসংখ্যান ভবনের মিলনায়তনে এ সংক্রান্ত একটি প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ তথ্য জানানো হয়।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর  মাঠ পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সম্মেলন, মনিটরিং দ্য সিচুয়েশন অব ভাইটাল স্ট্যাটিসটিকস অব বাংলাদেশ (এমএসভিএসবি) প্রকল্পের রিফ্রেসার্স প্রশিক্ষণ এবং বস্তিশুমারি ও ভাসমান লোকগণনা ২০১৪ এর জন্য প্রশিক্ষণ কার্যক্রমের আয়োজন করেছে বিবিএস।

আজকের অনুষ্ঠানে বলা হয়, এবারের বস্তিশুমারির মাধ্যমে দেশের বস্তির সংখ্যা, বস্তিতে অবস্থিত খানার সংখ্যা এবং বয়স ও লিঙ্গভেদে বস্তির জনসংখ্যা নিরূপণ করা হবে। এছাড়া দেশের বস্তিবাসীদের আর্থ-সামাজিক অবস্থা নিরূপণ করা যাবে।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এ শুমারির মাধ্যমে কোন জেলা হতে কত লোক বস্তিতে এসেছে, তাদের শিক্ষা, পেশা এবং পরিবেশগত তথ্যও সংগ্রহ করা হবে।

উল্লেখ্য, বিবিএস ১৯৮৫-৮৬ সালে প্রথম দেশের চারটি বড় শহর- ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা ও রাজশাহীতে বস্তিশুমারি করে। ১৯৯৭ সালে দেশে সকল শহর এলাকায় পূর্ণাঙ্গ বস্তিশুমারি অনুষ্ঠিত হয়। পরে ২০০৬ সালে বস্তিবাসীদের খাদ্য নিরাপত্তার ওপর এক জরিপ অনুষ্ঠিত হয়।

পরিসংখ্যান ব্যুরোর পরিচালক গোলাম মোস্তফা কামাল বলেন, পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য সঠিক ও গুণগত মানসম্পন্ন তথ্যের প্রয়োজন । শুমারির মাধ্যমে মাধ্যমে এসব জনগোষ্ঠীর তথ্য সংগ্রহ করে তাদের উন্নয়নে কার্যকর ভূমিকা রাখা যাবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, আমরা উন্নত বিশ্বের তুলনায় অনেক পিছিয়ে আছি। আমাদেরকে গতানুগতিক রাষ্ট্র পরিচলনা ব্যবস্থা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

এইচকেবি/