খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে নববর্ষে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা

0
66
khulna university

khulna universityখুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) বাংলা নববর্ষ বরণ উপলক্ষে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের সবচেয়ে বড় বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়াও দিনব্যাপী চলছে বৈশাখী মেলা।

সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েকউজ্জামান ক্যাম্পাসে প্রধান অতিথি হিসেবে বেলুন ও পায়রা উড়িয়ে মেলার উদ্বোধন করেন। পরে ভাইস-চ্যান্সেলরের নেতৃত্বে নগরীর শিববাড়ী মোড় থেকে ময়লাপোতা মোড় হয়ে রয়্যাল চত্বর পর্যন্ত এক বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের হয়।

শোভাযাত্রায় ট্রেজারার খান আতিয়ার রহমান, রেজিস্ট্রার ড. মোল্লা আমীর হোসেন, মেলা আয়োজক কমিটির সভাপতি প্রফেসর ড.মো. সারওয়ার জাহান, সদস্য-সচিব ছাত্রবিষয়ক পরিচালক প্রফেসর ড. অনির্বাণ মোস্তফাসহ শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা অংশ নেন।

নানা রংয়ের বেলুন, ফেস্টুন, ঘোড়ার গাড়ি, বিশাল আকারের হাত পাখা, ডুগডুগিসহ বর্ণিল সাজেরশোভাযাত্রাটি যখন এভিনিউ পথ দিয়ে যাচ্ছিল তখন আশপাশের মানুষ হাত নেড়ে অভিনন্দন জানায়।

রয়্যাল মোড়ে এসে পৌঁছলে ভাইস-চ্যান্সেলর সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের মধ্য দিয়ে শোভাযাত্রাটির সমাপ্তি ঘোষণা করেন। এ সময় তিনি সাফল্যের সাথে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রাটি আয়োজন ও তাতে অংশ নেওয়ার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনিস্টিটিউট, ছাত্রবিষয়ক পরিচালক এবং সকল শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রী এবং কর্মকর্তা-কর্মচারিসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জানান।

এদিকে দুপুর থেকে দলে দলে লোকজন স্রোতের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে শুরু করেছে। হাজার হাজার মানুষের সমাগম হলে গল্লামারী থেকে বিশ্ববিদ্যালয় পর্যন্ত জনস্রোতে রূপ নেয়। প্রচণ্ড ভিড় ঠেলে মানুষ মেলাঙ্গণে প্রবেশ করছেন, ঘুরছেন, দেখছেন এবং কিনছেন।

বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয় মাঠে মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠন এত অংশ নেবে।

কেএফ