হাজারো কন্ঠে বর্ষবরণ

0
61

hajaro-kantha-bg20120408192314ভোর ৬ টা। পূর্ব আকাশে সূর্য কেবলই তার আভা ছড়াতে শুরু করেছে। অন্ধকার ভেদ করে ফুটতে শুরু করেছে আলোর দিশা। এমনই সময় পুরাতন বছরের গ্লানিতে মুছে দিয়ে নতুন বছরের শুভ কামনায় হাজারো কন্ঠে শাণিত হলো ‘মুছে যাক গ্লানি, ঘুচে যাক জরা/ অগ্নিস্নানে শুচি হোক ধরা। রসের আবেশ রাশি/ শুষ্ক করে দাও আসি/ মায়ার কুজঝটিকা জাল যাক দূরে যাক… এসো, এসো, এসো, হে বৈশাখ।’

সোমবার এভাবেই নতুন বাংলা বছরকে স্বাগত জানালো বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উপস্থিত কয়েক হাজার বাঙ্গালী। চ্যানেল আই ও সুরের ধারা’র যৌথ আয়োজনে বাঙ্গালীদের এ বর্ষবরণের সাথে যুক্ত হয়েছে বাংলাদেশে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের নাগরিকেরা।

আয়োজনের দায়িত্বে থাকা চ্যানেল আইয়ের সিনিয়র প্রডিউসার জামাল রেজা অর্থসূচককে বলেন, নতুন বাংলা বছরকে বরণ করে নিতে প্রথমবারের মত চ্যানেল আই ও সুরের ধারা এক সাথে কাজ করছে। এক হাজার ২০০ জনেরও বেশি শিল্পী এখানে সঙ্গীত পরিবেশন করছেন। এর মধ্যে সুরের ধারা এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে গান শেখে এমন শিল্পীরা রয়েছেন। আগে থেকে রেজিস্ট্রশনের মাধ্যমে তাদের সংগ্রহ করা হয়েছে। সরাসরি সম্প্রচার ও মেলার সার্বিক তত্ত্বাবধায়ন করছে চ্যানেল আই। অনুষ্ঠানের শুরু থেকেই আমেরিকান রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজিনা এ অনুষ্ঠানে আছেন বলে জানান তিনি। এছাড়া বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, অধ্যাপক ড. আনিসুজ্জামান, মানবাধিকরকর্মী ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা সুলতানা কামাল, সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী দিপু মনি, চ্যানেল আই’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর, পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ, শিল্পী আজিজুর রহমান তুহিন সহ আরও অনেক বিশিষ্ট জনেরা এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত আছেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

আয়োজন সম্পর্কে তিনি আরও বলেন, নববর্ষের আগের দিন অর্থাৎ ১৩ এপ্রিল থেকেই আমাদের এ অনুষ্ঠান শুরু হয়েছে। গভীর রাত পর্যন্ত চলে এ অনুষ্ঠান। আজ দুপুর ১২টা পর্যন্ত নাচ, গান এবং কবিতা আবৃত্তির মধ্য দিয়ে নতুন বছরকে বরণ করার এ অনুষ্ঠান চলবে। তবে এ প্রঙ্গনে অনুষ্ঠিত মেলা সারাদিনই চলবে বলে জানান তিনি।

এসএই/