এ সরকার দিল্লীর তাবেদার সরকার: প্রধান

0
40

জাগপাভারতীয় আধিপত্যবাদ-বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও অস্তিত্বের শিকড় ধরে টান দিয়েছে। আর ভারতের এই আধিপত্যবাদ ও ভূমি দখলের বিরুদ্ধে সরকারের নীরবতা প্রমাণ করে এরা দিল্লীর তাবেদার সরকার।

১৯ দলীয় জোটের নেতা ও জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান আজ বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে আয়োজিত ভারতীয় বিএসএফ কর্তৃক বাংলাদেশের ভূমি দখল ও সীমান্ত হত্যা বন্ধের প্রতিবাদ সমাবেশে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিজয়ের সময়ই আমাদের স্বাধীনতার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র শুরু হয়। ১৬ই ডিসেম্বর আত্মসমর্পন অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল ওসমানীকে আসতে দেওয়া হয়নি। ইন্ডিয়ান জেনারেল জগজিৎ সিং অরোরার কাছে পাকিস্তানিদের আত্মসমর্পনে বাধ্য করা হয়। এর পরের ইতিহাস নির্মম লুন্ঠনের ইতিহাস। ফারাক্কা তিস্তাসহ ৫২টি নদীর উজানে বাঁধ দিয়ে সোনার বাংলাকে মরুভূমি বানোনোর ইতিহাস। সীমান্তে শহীদ ফেলানীসহ বাংলাদেশীদের হত্যা করা হচ্ছে। পিলখানায় নির্বিচারে সেনা হত্যা ও বিডিআর ধ্বংসের ইতিহাস।

প্রধান বলেন, সাফ কথা স্বাধীনতা ছায়া ছাড়া গণতন্ত্র, ধর্ম কিছুই বাঁচে না। ১৯৭১ ছিল স্বাধীনতার সংগ্রাম এবারের সংগ্রাম, স্বাধীনতা রক্ষার সংগ্রাম। ৭১’র শহীদ সেনা, বিডিআর, পুলিশ ছাত্র জনতার প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি ২০১৪ সালে স্বাধীনতা রক্ষার সংগ্রামে সকল ধর্ম, পেশা ও বাঙালী, পাহাড়ী, বিহারীদের ঐক্য প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।

স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র রক্ষায় তিনি দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে চলমান সংগ্রামকে তীব্র করার আহ্বান জানান।

জাগপার নগর সভাপতি আসাদুর রহমান খানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সানাউল্লাহ সানুর পরিচালনায়  বিশেষ অতিথি ছিলেন জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান। বক্তব্য রাখেন জাগপা সহ- সভাপতি মহিউদ্দিন বাবলু, মাস্টার এম.এ মান্নান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. এম রহমান, নগর জাগপা নেতা আরিফ হোসেন ফিরোজ, নাসির উদ্দিন, হাজী মোহাম্মদ উল্লাহ, নজরুল ইসলাম, এম. এ আজাদ, রিয়াজ আহমেদ, মো. ইসহাক মীর, তাজবীর হাসান মিলন, মো. রুবেল, যুব জাগপা নেতা রফিকুল ইসলাম সিকদার, শেখ ফরিদ উদ্দিন,  জাগপা ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল আলমসহ নজরুল ইসলাম বাবলু, সাব্বির আলম চৌধুরী রাজিব, সাইদুল ইসলাম সাগর, খোরশেদ আলম সুমন, মুনতাসির রায়হান মীম প্রমুখ।

সাকি/