রাজধানীর ফ্যাশন হাউজে বৈশাখী আয়োজন

0
60

Fashionবৈশাখে সবারই চাই নতুন ডিজাইনের নতুন পোশাক। ধোপদোরস্ত পোশাকের বাইরে প্রতিটি ফ্যাশন হাউজ নিয়ে আসে নতুন ধরনের পোশাক। বিশেষ উৎসবে সবসময়ই এসব ফ্যাশন হাউজ ভোক্তাদের চাহিদা ও সামর্থ্যের সাথে মিল রেখে বাজারে নিয়ে আসে হালের পোশাকি রং।

বাঙালির সবচেয়ে বড় এই উৎসবকে ঘিরে   জেনেনিন ফ্যাশন হাউজগুলোর আয়োজন

অঞ্জন’স- এ বৈশাখী প্রদর্শনী

অঞ্জন’স বৈশাখকে কেন্দ্র করে এবারো আয়োজন করেছে পোশাকের বিশেষ প্রদর্শনী বৈশাখী বাঙালিয়ানা ১৪২১।  অঞ্জন’স, নিজস্ব ভাবনায় বাংলাদেশের ঐতিহ্যবাহী লোকজ কারুশিল্প পোড়ামাটির টেপাপুতুল ও সুচিশিল্প নকশিকাঁথার অনুপ্রেরণায় বাংলা ১৪২১ সনের নববর্ষের পোশাকের সম্ভারটি রচনা করেছে।  বৈশাখের এই আয়োজনকে তুলে ধরার জন্য আয়োজন করা হয়েছে পোশাকের বিশেষ প্রদর্শনী।  উৎসবের রঙ লাল ও সাদাকে প্রাধান্য দিয়ে শাড়ি, ফতুয়া, পাঞ্জাবি, সালোয়ার-কামিজ তৈরি করা হয়েছে।  পাশাপাশি প্রর্দশনীতে স্থান পাবে পরিবারের শিশু-কিশোরদের জন্য পরার উপযোগী বৈশাখী পোশাক।  গত ৪ এপ্রিল এ উপলক্ষে আয়োজিত অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্ক শোরুমে। অঞ্জন’স-এর সব আউটলেটে বৈশাখের পোশাকের এই প্রদর্শনী চলবে আগামী ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত।

 লা রিভ এর বৈশাখী সম্ভার

পোশাক ও লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড ‘লা রিভ’ পুরুষ, মহিলা ও ছোটদের জন্য নিয়ে এসেছে পোশাকের এক বিশাল সম্ভার। ‘মঙ্গল শোভাযাত্রা’কে  মাথায় রেখেই লা রিভের এই পয়লা বৈশাখ কালেকশনের পোশাকগুলো ডিজাইন করা হয়েছে। মঙ্গলসোভাযাত্রার  সংস্কৃতি ও ঐতিহ্যের সাথে সামঞ্জস্য রেখে ডাই, এমব্লিশমেন্ট, সুচিকর্ম ও ধাতব মিশ্রণের ব্যবহার পোশাক এক আলাদা মাত্রা এনে দিয়েছে।  প্রথাগত বৈশাখী আমেজ ও রঙের ওপরে ভিত্তি করে সালোয়ার কামিজ, কুর্তা, পাঞ্জাবি, ফতুয়াতে কারচুপি সুচিশিল্প, টাইডাই, বুটিক, ব্লক, এম্ব্রয়ডারি ব্যবহারে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে উৎসব উপযোগী আমেজ। লাল ও সাদা রঙ ছাড়াও আন্তর্জাতিক রুচি অনুযায়ী গ্রীষ্মের উপযোগী বিভিন্ন উজ্জ্বল রঙ যেমন সবুজ, নীল, হলুদ, মানদারিন ইত্যাদি ব্যবহার করে এই কালেকশনকে ক্রেতাদের জন্য করা হয়েছে আকর্ষণীয়।

বৈশাখী আয়োজনে প্লাস পয়েন্ট 

ফ্যাশন হাউজ প্লাস পয়েন্টে বিশেষ আয়োজন হিসেবে রয়েছে টিশার্ট ও থ্রি কোয়ার্টার প্যান্টের রকমারি সমাহার। এ ছাড়াও গরম উপযোগী সব পোশাক তো থাকছেই। এসব পোশাকের মধ্যে রযেছে, টি-শার্ট, ট্যাং টপ।                                        প্লাস পয়েন্ট এসব পোশাকের দরদাম নির্ধারণ করেছে : থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট- ৭৯০ থেকে ১২৯০ টাকা,  টি-শার্ট- ৪৫০-১২৯০ টাকা,  ট্যাং টপ- ২৫০-৫৫০ টাকা।

ক্যাটস আই-বৈশাখের রঙ

বৈশাখ মানেই  উৎসব!  পোশাকে লাল-সাদা রঙ তো থাকছেই, সঙ্গে আছে অন্য রঙের ছড়াাছড়ি। ক্যাটস আইয়ের বৈশাখী আয়োজনে এ সময়টায় লিলেন,
জর্জেট বা সুতি ফেব্রিকে থাকছে কাট ও প্যাটার্ন ভিন্নতা।

সমকালীন ফ্যাশনভাবনায় যুক্ত হয়েছে পাশ্চাত্য ঘরনার সাথে দেশীয় মোটিভ ও সাতন্ত্রতা। পুরুষদের ক্যাজুয়াল উৎসবকেন্দ্রিক বৈশাখী আউটফিটের পাশাপাশি কালারফুল ওয়েস্টার্ন সামার পাবেন ক্যাটস আই এর বসুন্ধরা সিটি, গুলশান এবং যমুনা ফিউচার পার্কের শোরুমে।

কে ক্র্যাফটের বৈশাখী সমাহার

কে ক্র্যাফট নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে উপস্থাপন করেছে নতুন নতুন ডিজাইনের শাড়ি, সালোয়ার-কামিজ, টপস, পাঞ্জাবি, ফতুয়া, শার্ট, টি-শার্ট, শিশুদের পোশাক, অরনামেন্টস, গিফটস ও গৃহসজ্জা সামগ্রী নিয়ে বৈশাখী আয়োজন।  রঙ হিসেবে প্রধানত ব্যবহার হয়েছে লাল, মেরুন, অরেঞ্জ, সাদা, অফ-হোয়াইট, ম্যাজেন্টাসহ নানা রঙ।

কে ক্র্যাফট এ বছরে শাড়ির বৈচিত্রপূর্ণ ডিজাইনের একটি বড় আয়োজন উপস্থাপনা করেছে।  নিজস্ব ডিজাইনে বোনা তাঁতের শাড়িতে থাকছে বুননরীতি, মোটিফের ব্যবহার উপস্থাপনা, কালার বিন্যাস, ভ্যালু অ্যাডিশনে নানা মিডিয়ার ব্যবহারে নিপুণতা।  এবারের বৈশাখের কাজে বিষয় হিসেবে ভিন্নতা আনা হয়েছে।  পটচিত্র, ট্রাইবাল মোটিফ, গ্রিক আর্চ মোটিফ, ফাওয়ার মোটিফ ইত্যাদি বিষয় রয়েছে।

নিত্য উপহার

বাংলা নববর্ষ ১৪২১ এ এবারও নিত্য উপহার গ্রীষ্ম সাময়িকী শীর্ষক বৈশাখের পোশাক ও আলোকচিত্র প্রদর্শনীর আয়োজন করেছে।  এবারের প্রদর্শনীতে গ্রীষ্মের উপযোগী পোশাক, শাড়ি ও টি-শার্ট থাকছে। বিশেষ ভাবে টি-শার্টে ফুটে উঠেছে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সময়ের শৌখিন ও প্রফেশনাল ১৪ জন আলোকচিত্রির আলোকচিত্রের ণিক আভাষ এবং এর সাথে প্রবীন ও তরুণ শিল্পীদের কাজ ও পোশাক ভাবনা।

আড়ংয়ে চলছে শাড়ি প্রদর্শনী

ফ্যাশন হাউজ আড়ংয়ে শাড়ি দ্য আর্ট অব ড্রেইপিং নামের প্রদর্শনী শুরু হয়েছে ২৮ মার্চ। উত্তরা ও গুলশান শোরুমে চলছে এ আয়োজন। প্রদর্শিত হচ্ছে ১৪ শ’ শাড়ি। পাঁচ ডিজাইনারের সাথে প্রায় ৩০০ কারুশিল্পী দুই বছর ধরে শাড়িগুলো তৈরি করেছেন। আছে সিল্ক, মসলিন, তাঁত, কাতান আর জামদানির সংগ্রহ। সাদা তুলা ও কাপড় তৈরির কাঁচামাল দিয়ে প্রদর্শনীর জায়গাটি সাজানো হয়েছে।

মেনজ ক্লাবের বনেদি ডিজাইন

পুরনো বনেদি মোটিফের পাশাপাশি প্রচলিত সমকালীন তারুণ্যের পছন্দনীয় ডিজাইন নিয়ে এবারের বৈশাখের থিম নির্বাচন করেছে মেনজ কাব। বৈশাখের পাঞ্জাবিতে থাকছে সূক্ষ্ম নকশা আর সুচিকর্মের সম্মিলিত ক্যাভাস। রঙের ক্ষেত্রে অপ্রচলিত রঙের খেলা রয়েছে লাল-সাদার পাশাপাশি। ক্যাজুয়াল বা ফরমাল অন্যান্য আউটফিটের পাশাপাশি, সেমিফিট বৈশাখের এই পাঞ্জাবিগুলো পাওয়া যাবে ঢাকা, খুলনা, সিলেট ও চট্টগ্রামের সব শোরুমে।

 বালুচর

বালুচর এবারের বৈশাখে ব্যবহার করেছে কালো, নীল, সবুজ ইত্যাদি রঙ। বাসন্তী বৈশাখ উপলক্ষে বেশ কিছু নতুন ডিজাইনের সালোয়ার-কামিজ, ফতুয়া ও ছেলেদের শর্ট পাঞ্জাবি ও ফতুয়া এনেছে। এ ছাড়া রয়েছে বৈশাখী শাড়ি। এবারের আয়োজনে রয়েছে ছোটদের বৈশাখীর ভিন্ন ভিন্ন কালেকশন।

অন্যমেলা

বৈশাখকে সামনে রেখে অন্যমেলা নিয়ে এসেছে তাদের নতুন কালেকশন। কালেকশনে সাদা জমিনে উজ্জ্বল গাঢ় রঙ বিশেষ করে হলুদ, কমলা ও গোলাপি রঙ প্রাধান্য পেয়েছে। যা কি না গরম এবং উৎসবের পোশাক হিসেবে বিশেষভাবে উপযোগী।

 জে এম ক্ল্যাসিক ফ্যাশন

বাঙালির চিরন্তন ঐতিহ্য পয়লা বৈশাখকে কেন্দ্র করে বর্ণিল সংগ্রহ নিয়ে হাজির হয়েছে জে এম ক্যাসিক ফ্যাশন। ‘মনের রঙে সব সময়ে’ স্লোগানকে সামনে রেখে জজ ভূঞা গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠানটির পোশাকে বৈশাখের নিজস্ব ও ঐতিহ্যবাহী রঙ লাল-সাদাকে উপজীব্য করে ব্যবহার করা হয়েছে অন্যান্য রঙ। তরুণদের কথা বিবেচনা করে জে এম ক্যাসিকের পোশাকগুলোর ডিজাইন করা হয়েছে। নববর্ষের বিভিন্ন থিম নিয়ে তৈরি পোশাকগুলোর মধ্যে রয়েছে শাড়ি, পাঞ্জাবি এবং বাহারি ডিজাইনের সব থ্রি-পিস। জে এম ক্যাসিক ফ্যাশনের ব্যানারে বেড শিটসহ হোমটেক্সটের পণ্যও পাইকারি ও খুচরা বিক্রয় করা হয়।

ইজি

ঋতুর পালাবদলে এসেছে গরমকাল। আর এই গরমে চাই হালকা পোশাক। এ ছাড়া আর এক দিন পরই বাঙালির প্রাণের উৎসব বৈশাখ। সময়ের বিবেচনায় ফ্যাশন হাউজ ইজি নিয়ে এসেছে রঙ-বেরঙের টি-শার্ট।

ইষ্ট ওয়েতে বৈশাখ আয়োজন

বৈশাখের উজ্জ্বল রোদের রঙে সেজেছে ইষ্ট ওয়ে। সুতি, খাদি ও সিল্ক কাপড়ে করা হয়েছে এ্যাপ্লিকের কাজ। পোশাকের পাশাপাশি ইষ্ট ওয়েতে পাওয়া যাবে মানানসই জুতা ও স্যান্ডেল। পোশাক ও জুতাগুলো পাওয়া যাবে ইস্ট ওয়ের বসুন্ধরা সিটি; এইচ.এম প্লাজা, উত্তরা; সুবাস্তু আর্কেড, নিউ এলিফ্যান্ট রোডসহ  সবগুলো আউটলেটে

এআর