খুলনায় স্বল্প আয়ের মানুষের ভাগ্যে জুটবে না ইলিশ

0
73
ইলিশ রপ্তানি, hilsha export ban
ইলিশ মাছ- ফাইল ছবি

ইলিশ মাছবাংলা নববর্ষ বরণের অন্যতম অনুষঙ্গ হয়ে উঠেছে পান্তা-ইলিশ। আর নববর্ষকে সামনে রেখে বিভাগীয় মহানগরী খুলনায় বেড়েই চলেছে এই ইলিশের দাম। লাগামহীনভাবে অসাধু ব্যবসায়ীরা দাম বাড়ালেও তা দেখার যেন কেউ নেই। দফায় দফায় দাম বাড়ায় স্বল্প ও মধ্যম আয়ের মানুষের পক্ষে ইলিশের স্বাদ গ্রহণের আশা অনেকটাই অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে।

জানা যায়, এ মাসের শুরুতে মাঝারি সাইজের প্রতি কেজি ইলিশের মূল্য ছিল ৯’শ টাকা। মাত্র দু’সপ্তাহের ব্যবধানে সেই ইলিশ এখন বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ২০০ টাকা কেজি দরে। ছোট সাইজের ইলিশের মূল্য কেজিতে বেড়েছে ১ থেকে দেড়শ টাকা। আর বড় সাইজের প্রতি কেজি ইলিশের মূল্য চারশ টাকা বেড়ে এখন বিক্রি হচ্ছে ১ হাজার ৬’শ টাকায়। ফলে নববর্ষ উপলক্ষে ইলিশ কিনতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন ক্রেতারা।

সরেজমিনে দেখা গেছে, রূপসা মাছ বাজারে পৌনে দুই কেজি সাইজের ইলিশ কেজি প্রতি বিক্রি হয়েছে ৩ হাজার টাকা। সে হিসেবে প্রতি জোড়া ইলিশের দাম পড়েছে প্রায় সাড়ে ১০ হাজার টাকা।

মিস্ত্রিপাড়া বাজারে আসা বীমা কর্মকর্তা মো. কবীর হোসেন অর্থসূচককে জানান, বাংলা নববর্ষকে ঘিরে ইলিশের দাম বাড়ছে অস্বাভাবিক। যা অল্প আয়ের মানুষের পক্ষে কেনা কোনোভাবেই সম্ভব নয়।

বিক্রেতাদের দাবি, সরবরাহ কম আর চাহিদা বৃদ্ধির কারণেই বেড়েছে ইলিশের দাম।

খুলনা মহানগর নাগরিক ফোরামের চেয়ারপার্সন শেখ আবদুল কাইয়ুম বলেন, মাছ ব্যবসায়ীরা ইচ্ছামতো দাম বাড়ালেও প্রশাসন এ ব্যাপারে কোনো ব্যবস্থাই নিচ্ছে না।

তবে, ইলিশের মূল্য নিয়ন্ত্রণে অভিযানে নামার কথা জানালেন জেলা মার্কেটিং অফিসার আবদুস সালাম তরফদার।