বর্তমান প্রবৃদ্ধি দারিদ্র্যবিমোচনে যথেষ্ট নয় : বিশ্বব্যাংক

0
78

somalia-hungerঅর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বর্তমানে অর্জিত প্রবৃদ্ধি পৃথিবী থেকে দারিদ্র্য দূরীকরণে যথেষ্ট নয় বলে মনে করছে বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটির মতে, ২০৩০ সালের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে প্রতি সপ্তাহে ১০ লাখ মানুষের অবস্থার উন্নয়ন ঘটাতে হবে, যা বর্তমান প্রবৃদ্ধিতে একপ্রকার অসম্ভব । তাই কাঙ্ক্ষিত অবস্থানে পৌঁছানোর লক্ষ্যে প্রবৃদ্ধি বাড়ানোর পাশাপাশি সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণের কোনো বিকল্প নেই বলে মনে করছে তারা । সম্প্রতি বিশ্বব্যাংকের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই তথ্য জানানো হয়েছে। খবর বিবিসির।

বিশ্ব ব্যাংকের মতে, বর্তমান প্রবৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে ২০১০ থেকে ২০৩০ সালের মধ্যে দারিদ্র্যের হার পরিবর্তন ঘটবে মাত্র দশ শতাংশ। অথচ ২০১০ সালেও পৃথিবীতে দারিদ্র্যের হার ছিল ১৭ দশমিক ৭ শতাংশ।

এই সম্পর্কে বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম বলেন, এটা যথেষ্ট নয়। দারিদ্র্যের দিন শেষ করতে চাইলে আমাদের অবশ্যই প্রবৃদ্ধি বাড়াতে হবে।

বিশ্বব্যাংকে জানিয়েছে, বর্তমানে পৃথিবীজুড়ে প্রায় ১২০ কোটি মানুষ দরিদ্র সীমার নিচে বাস করছেন। তাই পৃথিবী থেকে আগামি ১৬ বছরের মধ্য দরিদ্রতা মুছে ফেলতে হলে প্রতি বছর প্রায় ৫ কোটির বেশি মানুষকে দরিদ্র সীমা থেকে বাইরে নিয়ে আসতে হবে। সেই হিসেবে প্রতি সপ্তাহে ১০ লাখ মানুষের অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে হবে।

এই সম্পর্কে কিম বলেন, এটা অবশ্যই কঠিন। তবে, আমরা বিশ্বাস করি আমরা তা পারব এবং এটাই চরম দারিদ্র্যতার সর্বশেষ কাল।

তবে পৃথিবীর সব জায়গায় দারিদ্র্যতা সুষমভাবে বন্টিত না হওয়ায় সমন্বিত উদ্যোগের কোন বিকল্প নেই বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক। এই যেমন, বাংলাদেশের দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দুই-তৃতীয়াংশ গ্রামে বাস করে, অথচ ব্রাজিলে এই হার মাত্র ২৩ শতাংশ।

এছাড়াও দারিদ্র্যতা বিমোচনের জন্য দরিদ্র জনগোষ্ঠী সংশ্লিষ্ট প্রণোদনা এবং অন্যান্য সহযোগিতা কার্যক্রম বাড়ানোর জন্য উন্নয়নশীল দেশের সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক। সংস্থাটির মতে, বাংলাদেশ সহ পৃথিবীর মাত্র পাঁচটি দেশে ৭৬ কোটি দরিদ্র মানুষ বাস করে। সামগ্রিক অবস্থার উন্নয়ন ঘটাতে হলে এইসব মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করা প্রয়োজন। এই জন্য কর্ম সংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি এবং বিনামূল্যে স্বাস্থ্য সেবা পৌঁছে দেওয়ার মতো কার্যক্রমে জোর দেওয়ার প্রয়োজন বলে জানিয়েছে সংস্থাটি।

তবে, এই সব উদ্যোগ গ্রহণের পাশাপাশি ধনী-দরিদ্র বৈষম্য কমিয়ে আনা প্রয়োজন বলে মনে করছে বিশ্বব্যাংক। কেননা, আয়ের পার্থক্য খুব বেশি হলে তা সামগ্রিক প্রবৃদ্ধিত ওপর প্রভাব ফেলে এবং দারিদ্র্যতাকে দীর্ঘায়িত করে।

তাই দারিদ্র্যতাকে জাদুঘরে পাঠানোর জন্য সমন্বিত উদ্যোগ, সদিচ্ছা এবং সম্মিলিত প্রচেষ্টা কোন বিকল্প নেই বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক। এর মাধ্যমেই দারিদ্র্যতার অভিশাপ মুক্ত পৃথিবী এবং কাঙ্ক্ষিত মানব সমাজ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।