মালয়েশিয়ার বিমানটি আছড়ে পড়েছে ব্রহ্মপুত্রে!

0
68
Biman-

Biman-প্রায় একমাস রহস্যাবৃত থাকার পর অবশেষে সন্ধান মিলেছে মালয়েশিয়ার হারিয়ে যাওয়া এমএইচ-৩৭০ বিমানটির। তাও আবার ব্রহ্মপুত্র নদে। চমকে যাওয়ার মতো হলেও এমনই একটি দাবি করেছেন পার্শ্বর্তী আসামের একাংশের মানুষ।

বৃহস্পতিবার আসামের নিউজ চ্যানেল ডিওয়াই-৩৬৫ ও আসাম নিউজ নামের একটি অনলাইন আসামের প্রত্যন্ত অঞ্চলের স্থানীয় বাসিন্দাদের বরাত দিয়ে এমন প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আসামের বরপেটা জেলার  প্রত্যন্ত  এলাকার ব্রহ্মপুত্র নদের পাড়ের স্থানীয় বাসিন্দাদের দাবি বিমানটি ব্রহ্মপুত্রে ভেঙে পড়েছে। সরকার যদি অনুসন্ধান শুরু করে তা হলে খুব শিগগিরই সত্য সামনে আসবে।

বিশ্বের বিমান দুর্ঘটনায় ইতিহাসে অন্যতম রহস্যজনক ঘটনা মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমান নিখোঁজ হয়ে যাওয়া। এক মাসের বেশি সময় অতিবাহিত হওয়ার পরও খোলেনি রহস্যের জট। অথচ বিভিন্ন আন্তর্জাতিক দল দফায় দফায় চালিয়েছেন অনুসন্ধান তৎপরতা।

২৫টিরও বেশি দেশের শতাধিক এয়ারক্রাফট, ১০টির বেশি কৃত্রিম উপগ্রহ আর জাহাজ দিয়ে ভারত মহাসাগর থেকে অস্ট্রেলিয়ার উপকূলবর্তী এলাকায় সাঁড়াশি অভিযান চালিয়েও মেলেনি কোনো তথ্য।  আর এরকম এক সময়ে বিমানটি আসামে ভেঙে পড়েছে বলে দাবি করলেন ওই এলাকার একদল মানুষ।

এই অবিশ্বাস্য দাবি করেছেন আসামের বরপেটা জেলার রূপসী এলাকার জনগণ। ওখানকার স্থানীয় জনগণ জানিয়েছেন, মাসখানেক আগে ভোরবেলা তারা আকাশে বিশাল জ্বলন্ত অগ্নিপিণ্ডের মতো কিছু একটা জিনিস দেখতে পান।  পরে ওই বিশাল অগ্নিপিণ্ডটি  ব্রহ্মপুত্রে আছড়ে পড়ে।  তখন এলাকা জুড়ে বিকট শব্দ হয়। স্থানীয় মানুষের ধারণা, এই অগ্নিপিণ্ডই সম্ভবত মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের সন্ধানহীন বিমানের অংশ।

দুই একজন নয় ওই  এলাকার অনেক মানুষই নাকি এই অগ্নিপিণ্ডের চাক্ষুষ সাক্ষী।  আবার ব্রহ্মপুত্রের বুকে আছড়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে যে বিকট শব্দ হয়েছে, সেই শব্দ শুনে অনেকের ঘুমও ভেঙেছে। স্থানীয়দের দাবি, প্রশাসনকে এ ব্যাপারে অবহিত করলেও কোনো খোঁজ নেয়নি তারা।

এসএসআর/এআর