ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নির্বাচন পরবর্তী সংঘর্ষে আহত ৩০

0
53
brahmonbaria

brahmonbariaব্রাহ্মণবাড়িয়া উপজেলা নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় দু’গোষ্ঠীর সংঘর্ষে কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়েছে। বুধবার দুপুরে সদর উপজেলার নাটাই গ্রামের ছলিমের গোষ্ঠী এবং চান্দের গোষ্ঠীর লোকদের মধ্যে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে। এ সময় দাঙ্গাবাজরা স্থানীয় বাজারের ৫/৬টি দোকানপাটে ভাঙচুর-লুটপাট চালানোসহ একটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ছয়জনকে আটক করেছে।

জানা যায়, সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ইসলামী ঐক্যজোট সমর্থিত ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী কাউসার মোল্লার সমর্থক সদর উপজেলার উত্তর নাটাই ইউনিয়নের নাটাই গ্রামের ছলিমের গোষ্ঠীর মোহাম্মদ আলীকে (২৫) মারধর করে নির্বাচনে বিজয়ী ভাইস চেয়ারম্যান মহসিন মিয়ার সমর্থক চান্দের গোষ্ঠীর কালাম মিয়া (৪৩)। এলাকায় এই খবর ছড়িয়ে পড়লে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে দুপুর প্রায় সাড়ে ১১টার দিকে সশস্ত্র সংঘর্ষে লিপ্ত হয়। প্রায় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে উভয়পক্ষের ৩০ জন আহত হয়।

আহতদের মধ্যে নজরুল ইসলাম (৪০), ফারুক মিয়া (৩৫), জোবায়ের হোসেন (৩৮), আবু হানিফ (৪০), মোরতাজ মিয়া (২৮), আবদুল হাকিম (৫০), জাকির হোসেন (৩২), আনোয়ার মিয়াকে (২৫) ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সংঘর্ষের সময় চান্দের গোষ্ঠীর লোকজন স্থানীয় বটতলী বাজারের ছলিমের গোষ্ঠীর ৫/৬টি দোকানপাটে ভাঙচুর-লুটপাট চালানোসহ একটি বাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে।

খবর পেয়ে সদর মডেল থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ব্যাপক লাঠিচার্জ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ছয় দাঙ্গাবাজকে আটক করে পুলিশ।

সদর মডেল থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি) মো. আবদুর রব ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এই ঘটনায় এখনো কোনো পক্ষই অভিযোগ দাখিল করেনি। ঘটনাস্থল থেকে ছয় দাঙ্গাবাজকে আটক করা হয়েছে।