বাজারমুখী হচ্ছেন খুলনার বিনিয়োগকারীরা

0
62
khulna-investor
খুলনার বিনিয়োগকারী

khulna-investorচলতি সপ্তাহে দেশের পুঁজিবাজারে স্থিতিশীলতার আভাস পাওয়ায় খুলনার বিনিয়োগকারীদের মাঝে কিছুটা আস্থা ফিরেছে। যেকারণে বাজারমুখী হওয়া শুরু করছেন তারা।

সিকিউরিটিজ হাউজে আসা বিনিয়োগকারীরা বলছেন, ‘বর্তমান বাজারের কিছুটা ইতিবাচক আচরণে নতুন করে প্রত্যাশা বাড়ছে আমাদের মধ্যে।’

তারা মনে করেন, বর্তমান বাজার স্থিতিশীলতার দিকে যাচ্ছে। মাঝে-মধ্যে সূচকের কারেকশন হচ্ছে। এটা বাজারের জন্য ভালো দিক। বাজারের এ গতি অব্যাহত থাকলে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আরও আস্থা বাড়বে।

তবে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত বিনিয়োগকারীদের মধ্যে বাজার নিয়ে এখনও সংশয় রয়েছে।

শাহাদাত হোসেন নামে এক বিনিয়োগকারী বলেন, পুঁজিবাজারের সার্বিক পরিস্থিতি অনেকটা সন্তোষজনক। বাজারে মাঝে-মধ্যে সূচকের কারেকশন হচ্ছে, এটা বাজারের জন্য ভালো দিক। বাজার একটানা বাড়া যেমন ভালো নয়। তেমনই একটানা সূচকের দরপতন কাম্য নয়।

বাজার সংশ্লিদের মতে, বাজার নিয়ে বিনিয়োগকারীদের উদ্বেগ কেটে যাচ্ছে। দিন দিন আস্থা হারানো বিনিয়োগকারীরা বাজারমুখী হচ্ছেন। একই সঙ্গে বাজারে আসছে নতুন নতুন বিনিয়োগকারী। এ ধারা অব্যাহত থাকলে আগের অবস্থার চেয়ে বাজার ভালো হবে বলে মনে করছেন তারা।

সিনহা সিকিউরিটিজ হাউজ কর্মকর্তা মো. এজাজুল হক জানান, চলতি সপ্তাহে বাজার কিছুটা ভালো হওয়ায় হাউজে আবারও বিনিয়োগকারীদের উপস্থিতি বাড়তে শুরু করেছে। এ ধারা অব্যাহত থাকলে বিনিয়োগকারীদের মধ্যে আস্থা বাড়তে পারে বলে মনে করেন তিনি।

তার মতে, এভাবে আরও কয়েক কার্যদিবস বাজার ইতিবাচকভাবে চলতে থাকলে পুনর্বিনিয়োগের মাধ্যমে বিনিয়োগকারীরা আগের ক্ষতির অনেকটাই পুষিয়ে নিতে পারবেন। তবে এজন্য ধৈর্য ও বিচক্ষণতার সঙ্গে কোম্পানির বর্তমান অবস্থা বুঝে বিনিয়োগ করতে হবে। হতাশ হয়ে কোনো অবস্থাতেই লোকসানে শেয়ার বিক্রি করা ঠিক হবে না। কারণ পুঁজিবাজারে ধৈর্যের কোনো বিকল্প নেই।

এআর