হোটেলের নির্মাণ উপকরণে শুল্ক ছাড়

0
159
হোটেল, hotel

হোটেল, hotelপর্যটন শিল্পের বিকাশে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন হোটেল নির্মাণে উৎসাহ দেবে সরকার। এ লক্ষ্যে উদ্যোক্তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)। ছাড় দিয়েছে এ ধরনের হোটেল নির্মাণে ব্যবহৃত উপকরণের আমদানি শুল্কে। এখন থেকে মাত্র ৫ শতাংশ শুল্কে বিদেশ থেকে বিভিন্ন ধরনের উপকরণ আমদানি করা যাবে। এনবিআর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

শুল্ক ছাড়ের বিষয়টি অবশ্য নিঃশর্ত নয়। ছাড়ের সুবিধা পেতে হলে বেশ কিছু শর্ত পরিপালন করতে হবে সংশ্লিষ্ট কোম্পানিকে। অবশ্যই হোটেলটিকে হতে হবে আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন। তার বাইরে ১১টি শর্ত পূরণ করতে হবে এ খাতের উদ্যোক্তাদের।

সূত্র জানিয়েছে, শুল্ক ছাড়ের বিষয়ে সম্প্রতি এনবিআর একটি এসআরও বা বিধিবদ্ধ আদেশ (নং-৫০-আইন /২০১৪/২৪৭৬) আদেশ জারি করেছে। আদেশে আমদানি পণ্যের আমদানি শুল্ক, রেগুলেটরী ডিউটি, মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ও সম্পূরক শুল্ক যা-ই হোক না কেন ৫ শতাংশ শুল্ক দিলেই হবে।

এ ব্যাপারে এনবিআরের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দেশে পর্যটন শিল্পের বিকাশের উদ্দেশ্য সফল করতে এই শুল্ক ছাড় দিয়েছে সরকার। তাই আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন হোটেল নির্মাণে বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয়, পর্যটন সংশ্লিষ্ট সরকারের বিভিন্ন দপ্তর ও হোটেল নির্মাণ সংশ্লিষ্ট উদ্যোক্তাদের অনুরোধে এ আদেশ জারি করা হয়েছে।

আদেশ থেকে দেখা যায়, হোটেল নির্মাণ সামগ্রীর ৭টি ক্যাটাগরিতে ৪২টি এইচএস কোডের (আমদানিকৃত পণ্যের শনাক্ত করণ নম্বর) পণ্যের জন্য এই শুল্ক ছাড় দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে হোটেলের অভ্যন্তরের নির্মাণ ও সাজসজ্জা সামগ্রী যেমন, কাঠের দরজা জানালা ও ফ্রেম, সোফা, কার্পেট, টাইলস সেনিটারি সামগ্রী থেকে শুরু করে রান্নাবান্না সংশ্লিষ্ট সামগ্রী, বিল্ডিং নিরাপত্তা সামগ্রী, আগুন নেবানোর যন্ত্রপাতি, ইলেকট্রনিক্স যন্ত্রপাতি-সবই রয়েছে শুল্ক ছাড়ের তালিকায়।

তবে এই শুল্ক ছাড় পেতে হলে অবশ্যই এনবিআর নির্ধারিত সব শর্ত পূরণ করতে হবে। আদেশের শর্তে বলা হয়েছে, আদেশের অধীন শুল্ক ছাড় কেবল চায়না হোটেলের মানসম্পন্ন অথবা বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয় কর্তৃক মানসম্পন্ন সদনধারী নির্দিষ্টকৃত আবাসিক হোটেল নির্মাণে ব্যবহৃত পণ্যসামগ্রীর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। বেসামরিক বিমান পরিবহণ ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট অংশীদার ও বিশেষজ্ঞের সমন্বয়ে একটি কমিটি গঠন করবে। এ কমিটি হোটেলের মানের বিষয়ে সনদ দেবে।  এই ছাড়পত্রের অনুলিপি এনবিআরে দাখিল করতে হবে।

এছাড়া, আবেদনকারী আবাসিক হোটেলকে মূসক নিবন্ধিত হতে হবে। আবাসিক হোটেলের মূসক নিবন্ধন সংক্রান্ত সনদসমূহের অনুলিপি, বিনিয়োগ বোর্ডের নিবন্ধন পত্রের অনুলিপি প্রয়োজন হবে।

এআর