ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদককে মারলো সহ-সভাপতি

0
62
ju
জবি ও ছাত্রলীগের লোগো

ছাত্রলীগজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম শিশিরকে মারধর করেছেন সংগঠনটির সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর দপ্তরে মঙ্গলবার দুপুরে সাংগঠনিক কমান্ড মানা না মানাকে কেন্দ্র করে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনা চলাকালীন সময়ে একাধিক সাংবাদিক প্রক্টর দপ্তরে প্রবেশ করতে চাইলেও তাদের প্রবেশ করতে দেওয়া হয়নি। পরে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি শরীফুল ইসলামের হস্তক্ষেপে ঘটনাটি মীমাংসা করেন।

এই সময় প্রক্টর দপ্তরে থাকা ছাত্রলীগ কর্মীরা জানায়, দুপুর ১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম শিশির প্রক্টর দপ্তরে প্রবেশ করেন। শিশির সাংগঠনিক কমান্ড না মানার অভিযোগ এনে প্রক্টর দপ্তরে থাকা সহ-সভাপতি আক্তার হোসেনকে দরজা বন্ধ করে মারধর করার চেষ্টা করে। এ সময় পাল্টা ক্ষিপ্ত হয়ে সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন তাকে চড়-থাপ্পড় মারে। মারামারির একপর্যায়ে মফিজুল ইসলাম প্রক্টর দপ্তরে থাকা ছাত্রলীগ কর্মীদের আক্তার হোসেনকে মারধর করতে নির্দেশ দেন। তবে ছাত্রলীগ কর্মীরা তার অনুরোধ উপেক্ষা করেন।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম শিশির ও সহ-সভাপতি আক্তার হোসেন বলেন, আমরা বন্ধুবান্ধব দুষ্টুমী করছিলাম। এসব নিয়েই আমাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. অশোক কুমার সাহা বলেন, ঘটনার সময় আমি দপ্তরে ছিলাম না। তবে কোন অভিযোগ আসলে জড়িতদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক ভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এনআর/সাকি