ইউক্রেনে গৃহযুদ্ধ বেধে যেতে পারে : রাশিয়া

0
69
ukraine

ukraineবিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনে সামরিক শক্তির ব্যবহার ইউক্রেনে গৃহযুদ্ধ বাধিয়ে দিতে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে রাশিয়া। মঙ্গলবার রুশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে এই সতর্ক বার্তা প্রদান করা হয়। খবর সিএনএনের।

গত কয়েক মাস ধরে ইউক্রেন নিয়ে নোংরা রাজনৈতিক খেলায় মেতে উঠেছে রাশিয়া এবং পশ্চিমা দেশগুলো। সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের উত্তারাধিকার হিসেবে রাশিয়া সবসময় ইউক্রেনে নিজের কর্তৃত্ব অক্ষুণ্ন চেষ্টা করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় গত নভেম্বরে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের সাথে বাণিজ্যিক চুক্তি স্বাক্ষরে অস্বীকৃতি জানান রাশিয়া সমর্থক প্রেসিডেন্ট ইয়ানুকোভিচ।

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র এবং ইইউ’র মদদে দেশটিতে চলমান আন্দোলনের চাপে ইয়ানুকোভিচ সরে দাঁড়াতে বাধ্য হলে ইউক্রেনে রাশিয়ার কর্তৃত্ব হুমকির মুখে পড়ে। বিশেষ করে, অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের সাথে পশ্চিমাদের ঘনিষ্ঠতা রাশিয়ানদের শংকাকে আরও ঘনীভূত করে তোলে। এরই প্রেক্ষিতে, রুশ জাতিগোষ্ঠী অধ্যুষিত ক্রিমিয়া স্বাধীনতা ঘোষণা করে রাশিয়ার সাথে যোগদানের প্রস্তাব পাঠায়। ক্ষমতাসীন ইউক্রেন সরকার এবং পশ্চিমাদের পক্ষে এই কাণ্ডে নীরব দর্শক ভূমিকা পালন করা ছাড়া আর কিছু করার ছিল না। কিন্তু তাতে মনের ঝাল মেটেনি রাশিয়ান সরকারের। বিশেষ করে, গত কয়েক দিন ধরে খারকিভ, ডনেটস্ক এবং লুহানস্কে বিচ্ছিন্নতাবাদীদের উত্থান অন্তত পক্ষে তাই প্রমাণ করে।

কিন্তু এবার আর নীরব থাকেনি ইউক্রেন। বরং বিচ্ছিন্নতাবাদীদের দমনে সেনাবাহিনী ব্যবহারের তোড়জোড় শুরু করে দেশটির সরকার। এরই প্রেক্ষিতে রুশ সরকারের পক্ষ থেকে গৃহযুদ্ধের সতর্কতা জানানো হল।

বিবৃতিতে রাশিয়া জানায়, নিয়ন্ত্রণ ফিরে পেতে সামরিক শক্তির ব্যবহার ইউক্রেনে গৃহযুদ্ধের মতো ভয়াবহ পরিণতি ডেকে আনতে পারে। এসময় রুশ সরকার ইউক্রেনের সরকারকে দায়িত্বশীল আচরণের আহ্বান জানায়।

পশ্চিমা দেশগুলো রাশিয়ার এই বার্তা বেশ সতর্কতার সাথে পর্যবেক্ষণ করেছে। তবে, এই ব্যাপারে এখনো পর্যন্ত কোন বিবৃতি প্রদান করেনি তারা।