জাহাজ ভাঙা শিল্পে দুর্ঘটনার প্রধান কারণ শ্রমিকদের অদক্ষতা

0
86
Ship-pressbreafing

Ship-pressbreafingজাহাজ ভাঙা শিল্পে শ্রমিকদের অদক্ষতা ও যথাযথ প্রশিক্ষণের অভাবকেই শ্রমিক দুর্ঘটনার প্রধান কারণ হিসেবে চিহ্নিত করেছে কোয়ালিশন অব লোকাল এনজিওস বাংলাদেশ (সিএলএনবি)। সেই সঙ্গে অবিলম্বে এসব সমস্যার সমাধানের দাবিও জানিয়েছে এই সংগঠনটি।

মঙ্গলবার রাজধানীর সেগুনবাগিচার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির গোলটেবিলে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানান সংগঠনটির চেয়ারম্যান হারুনূর রশিদ। সংবাদ সম্মেলনে এসব সমস্যার দ্রুত সমাধান করতে আন্তঃমন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছে সিএলএনবি। অন্যথায় আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ ও দুর্বার আন্দোলেনরও ঘোষণা দিয়েছে তারা।

হাইকোর্টের রিট পিটিশন-৭২৬০/২০০৮ এর নির্দেশনা অনুযায়ী শ্রমিকদের পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণ নিয়ে ইয়ার্ডে কাজ করার নির্দেশনা থাকলেও অধিকাংশ শ্রমিক কোনো প্রশিক্ষণ ছাড়াই কাজ করছেন ইয়ার্ডে।

সিএলএনবির তথ্যমতে, ইয়ার্ডে কাজ করার জন্য একজন শ্রমিককে অবশ্যই কোনো স্বীকৃত প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ নেওয়ার কথা থাকলেও মাত্র ৪,৯০৮ জনের এই সনদ রয়েছে। অথচ ইয়ার্ডের মালিকদের দাবি অনুযায়ী মোট শ্রমিক সংখ্যা ২ লাখেরও বেশি। এদিকে,  প্রশিক্ষণ ছাড়া কাজ করলে শ্রমিকদের ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করারও বিধান থাকলেও তা কার্যকর নেই।

এছাড়া, ওই পিটিশনের ৩.১১ বিধি অনুযায়ী জাহাজের নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য শিল্প মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা প্যানেল নিয়োগ করার কথা এবং সেজন্য কাটিং পারমিশনের সময় এ সংক্রান্ত ফি নিলেও আদৌ কোনো প্যানেল নেই মন্ত্রণালয়ের।

এসব সমস্যা সমাধানের জন্য সুনির্দিষ্ট ৬টি দাবি জানানো হয়েছে সংবাদ সম্মলনে।  এগুলো হলো- শ্রমিকদের প্রশিক্ষণ নিশ্চিত করা, শিপ রিসাইক্লিং ফ্যাসিলিটিজ প্ল্যান ছাড়া জাহাজ আমদানির অনুমতি না দেওয়া, বিধি মোতাবেক আইনের যথাযথ প্রয়োগ করা, আইন অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ফৌজদারি কার্যবিধি অনুযায়ী হত্যা মামলা পরিচালনা করা এবং জাহাজ মালিক কর্তৃক ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি ও পরিবারকে উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য ও প্রশিকার মানবিক উন্নয়ন কেন্দ্রের পরিচালক নার্গিস জাহান বানু, প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি শামসুল আলম, সিএলএনবির নির্বাহী সম্পাদক শামীম রেজা প্রমুখ।

এসএসআর