যিশুকে ক্রুশবিদ্ধ করা হয়েছিল অন্যভঙ্গিতে

0
163

jesus_crucifixion_00402ঈশ্বর পুত্র যিশু এসেছিলেন পাপ পঙ্কিল জীবন ধারায় পবত্রতার ছোঁয়া দিতে। নিজের জীবন উৎসর্গ করেছিলেন মানবতার মুক্তির জন্য। তিনি ক্রুশবিদ্ধ হয়ে জীবন দিয়েছিলেন। তার এই ক্রুশবিদ্ধ নিয়ে রয়েছে নানা রহস্য। কেউ কেউ বলে থাকেন, তাকে ‘টি’  আকৃতিতে ক্রুশ বিদ্ধ করা হয়েছিল। আবার কেউ কেউ বলেন, তাকে ‘টি’ আকৃতিতে নয় অন্যভাবে হত্যা করা হয়েছিল।

সম্প্রতি এই রহস্যের অবসান ঘটিয়েছে লিভারপুলের  জন মুর বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষক মাত্তেও বোরিনী। তিনি  বলছেন, মাটির সমান্তরালে দুই হাত ছড়ানো অবস্থায় নয়, সম্ভবত ‘ওয়াই’ আকৃতিতে তাকে ক্রুশবিদ্ধ করা হয়েছিল। তার ভাষ্য, বিখ্যাত শ্রাউডি অফ তুরিন থেকেই এমন ভাবনার রসদ পেয়েছেন তিনি। খবর দ্য ক্রিস্টিয়ান পোস্টের।

মাত্তেও বোরিনির বিবৃতির বরাত দিয়ে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, শ্রাউড অফ তুরিন একটি কাপড়ের টুকরো। যার দৈর্ঘ্য  প্রায় ১৪.৩ ফুট, চওড়া ৩.৭ ফুট। এক সময় বিশ্বাস করা হত ক্রুশবিদ্ধ করার পর এই কাপড় দিয়েই মুড়ে দেওয়া হয়েছিল যিশুর দেহ। কিন্ত্ত পরবর্তীকালে কার্বন ডেটিং প্রযুক্তি কাজে লাগিয়ে এই ধারণা ভুল প্রমাণ করা হয়েছে।

কাপড়টির ওপর আঁকা আছে আবছা একটি ছবি। এক ব্যক্তির দুই হাত মাথার ওপর তুলে রাখা হয়েছে৷ হাত দু’টি দিয়ে নেমেছে রক্তের স্রোত৷ বোরিনির দাবি, এই ছবির শিল্পীই তাঁকে নতুন দিশা দিয়েছেন। এই বিষয়ে তিনি পাভিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের আরও এক গবেষকের সঙ্গে আলোচনাও করেছেন।

মিলিত আলোচনায় সিদ্ধান্ত হয়েছে, দুই হাত মাথার ওপরে রেখে ক্রুশবিদ্ধ করা হলে এমন ভাবেই দু’হাত গড়িয়ে রক্তের ধারা নামা সম্ভব। ইংরেজি টি অক্ষরের বদলে এ ক্ষেত্রে ক্রুশবিদ্ধ ব্যক্তিকে ইংরেজি ওয়াই অক্ষরের মতো দেখতে লাগবে।

বোরিনি জানাচ্ছেন, এই পদ্ধতিতে যদি যিশুকে ক্রুশবিদ্ধ করা হয়ে থাকে তা হলে তিনি অসহ্য কষ্ট পেয়েছিলেন৷ এমন ভাবে ক্রুশবিদ্ধ করলে রক্তক্ষরণের সঙ্গে সঙ্গে দম আটকে মারা যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকে।

এস রহমান/