কাল বৈশাখী ঝড়ই কাল হলো ক্যারিবীয়দের

0
59

Rain_hitশুরুটা ভালোই করেছিল ক্যারিবীয়রা। এক বছর পর আবারও হয়তো ফাইনালে খেলতো তারাই। কিন্তু বিধির বিড়ম্বনা হলো বৃষ্টি। ২০ ওভার ম্যাচ খেলে যেখানে জয়ের সম্ভাবনা ছিলো সেখানে ডার্ক লুইস পদ্ধতিতে আটকা পড়ে ১৩ ওভার ৫ বলেই  শেষ হলো ক্যারিবীয়দের ইনিংস। ২৭ রানের জয়ে ফাইনালের টিকেট মিলেছে লাসিথ মালিঙ্গার দল শ্রীলংকার।

এক বছর আগে ক্যারিবীয়দের কাছে হেরেই চ্যাম্পিয়নের তকমা গায়ে লাগাতে পারেনি লঙ্কানরা। রানার্স আপ হিসেবেই সন্তুষ্ট থাকতে হয় তাদের। কিন্তু এবার পরিচিত কন্ডিশনে সেই পরাজয়ের মধুর প্রতিশোধ নেওয়ার লক্ষ্য ছিলো মালিঙ্গা বাহিনীর।

তবে মধুর প্রতিশোধ না নিতে পারলেও কালবৈশাখী ঝড়ে ভর করে ফাইনালে খেলার যোগ্যতা হয়েছে তাদের। আর ফাইনালে তাদের সঙ্গী কে তা নির্ধারণ হবে কালকের ম্যাচে।

নকআউট সেমিফাইনালের আজকের ম্যাচে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন চান্দিমালের স্থলাভিষিক্ত লঙ্কান দলপতি লাসিথ মালিঙ্গা। শুরুটা চার-ছক্কার  মধ্য দিয়ে শুরু হলেও লঙ্কান শিবিরে আঘাত হানতে সময় লাগেনি  ক্যারিবীয়দের।

১৬১ রানের যে লক্ষ্যমাত্রা লঙ্কানরা ছুড়ে দিয়েছিল ক্যারিবীয়দের শীলা আর বৃষ্টি না হলে তা হয়তো টপকে যেতে পারতো তারা। অবশ্য বৃষ্টি নামার আগ পর্যন্ত তাদের প্রয়োজনীয় রান রেট ছিলো ১৩’র চেয়েও বেশি।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওই সময় পর্যন্ত সংগ্রহ ছিলো ১৩.৫ ওভারে ৪ উইকেটে ৮০।  অবশিষ্ট ৩৭ বলে আরও ৮১ রান করতে হতো তাদের।  স্যামির বিশ্বাস, বৃষ্টি না হলে তারা এ রান করেও ফেলতে পারতেন, “আমাদের ড্রেসিংরুমে কোনো আতঙ্ক ছিল না। আমাদের মনে হচ্ছিল, আজও একটি কঠিন কাজ করতে হবে। কদিন আগেও কিন্তু এমন পরিস্থিতি থেকে আমরা ম্যাচ জিতেছি। তাই আমাদের অবশিষ্ট যারা ছিল তারা এ রান করে ফেলতেও পারত। ক্রিকেটে অনেক কিছুই সম্ভব”।

এসএসআর