মালয়েশিয়ান নিখোঁজ বিমান খুঁজবে ‘পিঙ্গার’

0
77

airপ্রায় একমাস হতে চলেছে। মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের কোনো খোঁজ মেলেনি। অনুসন্ধানেরও জুড়ি নেই। ইতোমধ্যে অনেকেই হাল ছেড়ে দিয়েছে। অনুসন্ধানকারীদের অনেকের ভাষ্য, প্লেনটি তো সাগরে গায়েব হয়ে যেতে পারে না। তবে গেল কোথায়? এ প্রশ্নের উত্তর পেতে ফের অনুসন্ধান চালানো শুরু করেছে বিশেষ প্রযুক্তিসম্পন্ন যন্ত্র ‘পিঙ্গার’। অস্ট্রেলিয়ান অনুসন্ধানকারী দল বলছেন, দক্ষিণ ভারত মহাসাগরে এই পিঙ্গার লোকেটরটি নিখোঁজ প্লেনের ব্লাক বক্স  খুঁজে দিতে পারবে বলে মনে করেন তারা।

শুক্রবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ব্লাক বক্স পেতে আজ থেকে অস্ট্রেলিয়ান দুটি জাহাজ নিয়ে অনুসন্ধান শুরু করেছে পিঙ্গার । অনুসন্ধানকারীরা জানিয়েছেন, সাগরের তলদেশে এটি ২৪০ থেকে ২৫০ কিলোমিটার এলাকা তন্নতন্ন করে খুঁজে বেড়াবে। আশা করা হচ্ছে ব্লাক বক্সটি এর মাধ্যমে খুঁজে পাওয়া সম্ভব হবে। এছাড়া বিমানের ধ্বংসাবশেষ খুঁজতে এর সাথে আরও  ৯টি জাহাজ ও ১৪টিরও বেশি বিমান অনুসন্ধান শুরু করছে।pinger

উল্লেখ্য,  বিমানটি চীনের উদ্দেশে ৮ মার্চ শনিবার স্থানীয় সময় ২টা ৪০ মিনিটে কুয়ালালামপুর থেকে ছেড়ে যায়। কিন্ত ১০টা ৩০ মিনিটে এটি বেইজিং-এ পৌঁছানোর কথা থাকলেও  পৌঁছায়নি। ভিয়েতনামী সরকারের ওয়েবসাইটে জানানো হয়, দক্ষিণ ভিয়েতনামের ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় বিমানটির রাডার বন্ধ হয়ে গিয়েছিল।

মালয়েশিয়ান এয়ারলাইন্সের জানায়, নিখোঁজ হওয়ার পর থেকেই অভিযান চালাচ্ছে তারা। তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বিধ্বস্ত বিমানের কোন ‘চিহ্ন’ খুঁজে পাওয়া যায়নি। অনেকসময় অনুসন্ধানকারীদের কাছ থেকে বিভিন্ন আশার বাণী শুনলেও শেষ পর্যন্ত সব আশা ফিঁকে হয়ে গেছে। ৫ জন শিশুসহ ২২৭ জন যাত্রী, এবং ১২ জন ক্রু নিয়ে বিমানটি যাত্রা শুরু করেছিল।

এস রহমান/