ফরিদপুরে ভুয়া এনজিওর দৌরাত্ম্য বাড়ছে

0
75
foridpur
ফরিদপুর মানচিত্র

ফরিদপুর ম্যাপফরিদপুরে বিভিন্ন উপজেলায় ভুয়া এনজিওর দৌরাত্ম্য বাড়ছে। কর্তৃপক্ষের অনুমতি না নিয়েই বিভিন্ন বাজরে কক্ষ ভাড়া নিয়ে কার্যক্রম চালানো হচ্ছে বলে অভিযোগ ভুক্তভোগীদের।

জানা গেছে, বেশ কয়েকবছর কার্যক্রম চালিয়ে সাধারণ মানুষকে প্রলোভন দেখিয়ে সঞ্চয়ের নামে অর্থ সংগ্রহ করে পালিয়ে যাচ্ছে। আবার কোনো কোনো এনজিও বেকার শিক্ষিত যুবকদের চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে মোটা অঙ্কের টাকা জামানতের নামে হাতিয়ে নিচ্ছে।

এদের বিরুদ্ধে প্রশাসনের পক্ষ থেকে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হলেও তা অপর্যাপ্ত বলে দাবি ভুক্তভোগীদের। বরং প্রশাসনের নাকের ডগায় ভুয়া এনজিওরা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। আর প্রশাসন তা দেখেও না দেখার ভান করছে বলে দাবি অনেকের।

এদিকে, গত ১৫ দিনে আগে সালথা বাজারে কর্মসংস্থান ব্যাংকের চতুর্থ তলায় “পরিবেশ উন্নয়নে গাছপালা” বায়ুমণ্ডলে কার্বন হ্রাস প্রকল্প বাস্তবায়নে “রুপালী হেল্থ কেয়ার ফাউন্ডেশন” নামে একটি এনজিও অফিস চালু করে। এ প্রতিষ্ঠানের উপজেলা পরিচালক ময়নুদ্দীন মোল্লা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে ৭২ জন মাঠ কর্মীর নিকট থেকে ১০ হাজার টাকা, ৮ জন ইউপি সুপার ভাইজারের নিকট থেকে জনপ্রতি ১৫ হাজার টাকা নিয়ে নিয়োগ প্রদান করে।

খবর পেয়ে উপজেলা প্রশাসন বুধবার ওই প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে পরিচালক ময়নুদ্দীন মোল্যা (৪৫) কে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে। এর আগে সালথা বাজার থানা রোডে এনজিও রুপালী হেল্থ কেয়ার ফাউন্ডেশন নামের অফিসটি ভুয়া বলে সিলগালা করা হয়। অপরদিকে ফরিদপুরের জেলা সদরসহ বিভিন্ন উপজেলা থেকে ২-৩ বছরে কয়েকটি মাল্টিপারপাস কোম্পানিসহ এনজিওরা হাজার কোটি টাকা নিয়ে পালিয়ে গেছে।

বোয়ালমারীর চম্পারানী জানান, লাভের আশার ম্যাক্সিম মাল্টিপারপাস নামে একটি কোম্পানিতে দেড় লাখ টাকা রেখেছিলাম। কয়েকমাস লাভের টাকা দিয়ে কোম্পানিটি অফিস গুটিয়ে ফেলে। বিভিন্ন দপ্তরে ধরনা দিয়েও টাকার কোনো সুরাহা করতে পারেননি তিনি।

মধুখালী উপজেলার ডুমাইন বাজারের কয়েকজন গ্রাহক দাবি করেন, লাভের আশায় ডুমাইন বাজারের একটি অফিসে টাকা রেখেছিলাম। ২-৩ বছর পর কোম্পানিটি উধাও হয়ে যায়।

জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রতিনিয়ত মাল্টিপারপাস বা এনজিওর সাইনবোর্ড টানিয়ে জনসাধারণ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়ে উধাও হয়ে যাওয়া নিত্য নৈমিত্তক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। একের পর এক মানুষ প্রতারিত হলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশানরুপ কোনো উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে না। এতে অপরাধ করেও পার পেয়ে যাচ্ছে অপরাধীচক্র।

কেএফ