কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক কমানোর দাবি ঔষধ শিল্প সমিতির

0
91
NBR-1

NBR-1ওষুধ রপ্তানির মাধ্যমে অধিক রাজস্ব আয়ের লক্ষ্যে কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক কমানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতি। আর একই সাথে আয়ুর্বেদিক ও হারবাল ঔষধ শিল্পের ওপর আলাদা প্রণোদনা চেয়েছে এ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট অ্যাসোসিয়েশনগুলো।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর সেগুন বাগিচায় জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সম্মেলন কক্ষে এনবিআরের সাথে প্রাক-বাজেট আলোচনায় এ দাবি জানায় ওষুধ ও চিকিৎসার সাথে জড়িত বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

এনবিআর চেয়ারম্যান গোলাম হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠানে ক্লিনিক ও ডায়াগনস্টিক সেন্টার অ্যাসোসিয়েশনসহ মোট ১৪টি সংগঠন অংশ নেওয়ার কথা থাকলেও ওষুধ ও চিকিৎসা খাতের ৮টি সংগঠন উপস্থিত হয়।

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ঔষধ শিল্প সমিতিরি প্রতিনিধি ড. আব্দুল মালেক চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের বড় শিল্পগুলোর মধ্যে ঔষধ শিল্প অন্যতম। দেশের চাহিদার ৯৮ শতাংশ ঔষধ আমাদের দেশের শিল্প প্রতিষ্ঠানগুলোই উৎপাদন করে। এছাড়া দেশের চাহিদা মিটিয়ে বর্তমানে বিশ্বের ৫০টির ও অধিক দেশে বাংলাদেশের ওষুধ রপ্তানি হয়।

তিনি আরও বলেন, ঔষধ শিল্প দেশের অর্থনীতিতে বিরাট ভুমিকা রাখলেও এর অধিকাংশ কাঁচামাল দেশের বাহিরে থেকে আমদানি করতে হয়। তবে এ ঔষধ শিল্পে মূল্য সংযোজন কর ও উৎসে করের পাশাপাশি কাঁচামাল আমদানিতে সরকারকে ২৫ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়; বিধায় এ শিল্পের বিকাশ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়া এ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন যন্ত্রাংশ আমদানিতে সরকারকে ৫ থেকে ৩০ শতাংশ পর্যন্ত শুল্ক দিতে হয় বলে উল্লেখ করে এ শিল্পের কাঁচামাল ও যন্ত্রাংশ আমদানিতে শুল্ক কমানোর দাবি করেন তিনি।

এ সময় তিনি ঔষধ শিল্পের সাথে সংশ্লিষ্ট মোড়ক, কাঁচামাল ও অন্যান্য অতীব প্রয়োজনীয় উপাদান ঔষধ শিল্প আইনের সাথে সংযোজন করা, কিডনি ডায়ালাইসিস সলিউশন উপাদানের ওপর ভ্যাট প্রত্যাহার, ক্যান্সার নিরোধ ও জন্মনিরোধ ওষুধের কাঁচামাল আমদানিতে শুল্ক প্রত্যাহার, দেশি ওষুধকে দেশের বাহিরে পরিচিতি করার জন্য নমুনা ওষুধের রপ্তানি শুল্ক অব্যাহতি ও বোতল-মোড়কের শুল্ক ৩০ শতাংশ থেকে ৫ করার দাবি করেন।

আলোচনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আয়ুর্বেদিক ঔষধ সমিতির প্রতিনিধিরা জানান, সরকার স্বাস্থ্য খাতে ৯ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা দিয়ে থাকে। কিন্তু আমরা এ প্রণোদনার মাত্র ৯ কোটি টাকাও পাই না। আয়ুর্বেদিক চিকিৎসাকে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে এ খাতে বিশেষ প্রণোদনা দাবি করেন তারা।

অন্যদিকে বাংলাদেশ ইউনানী ঔষধ সমিতি ও বাংলাদেশ হোমিওপ্যাথিক মেডিসিন ম্যানুফ্যাকচারিং অ্যাসোসিয়েশনের নেতারা এ খাতে বিশেষ প্রণোদনা দেওয়ার পাশাপাশি বোতল ও মোড়ক আমদানিতে সকল প্রকার শুল্ক প্রত্যাহরের দাবি জানান।

এইউ নয়ন/এআর