বেসরকারী খাতের উন্নয়নে কোম্পানী আইনের সংস্কার চায় ডিসিসিআই

নিজস্ব প্রতিবেদক

0
78
ছবি: জয়নাল আবেদিন।

অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ধারাকে বেগবান করা এবং নতুন নতুন বিনিয়োগ আকৃষ্ট করার জন্য প্রয়োজনীয় নীতিমালার সংস্কার, ব্যবসা পরিচালনায় ব্যয় হ্রাস, মানবসম্পদ ও প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা বৃদ্ধি এবং অবকাঠামো উন্নয়নের কোন বিকল্প নেই।

আজ বৃহস্পতিবার ঢাকা চেম্বার অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত ‘বেসরকারী খাতের উন্নয়নে কোম্পানী আইনের সংস্কার’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনা সভায় এই দাবি করেন ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি’র (ডিসিসিআই)  সভাপতি আবুল কাশেম খান।

আলোচনা সভায় অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন।  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাণিজ্য সচিব শুভাশীষ বসু ।

আবুল কাশেম বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হতে হলে ব্যবসা পরিচালনায় সহজাত পরিবেশ তৈরির বিষয়টি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নতুন ব্যবসায়িক কার্যক্রম শুরুর জন্য নিবন্ধন পাওয়ার ক্ষেত্রে প্রক্রিয়াগত জটিলতা কমানো এবং বিভিন্ন ধরনের ফি/চার্জ হ্রাসের আহ্বানও জানান তিনি।

ছবি: জয়নাল আবেদিন।

আবুল কাশেম আরও বলেন, প্রস্তাবিত কোম্পানী আইন বাস্তবায়িত হলে অনেক নতুন কোম্পানী করের নেটওয়ার্কের আওতায় চলে আসবে এবং সরকারের রাজস্ব আহরণের পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে।

প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান বলেন, কোম্পানী আইন প্রণয়ন ও চূড়ান্তকরণের ক্ষেত্রে সরকার সংশ্লিষ্ট সকল স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে মতবিনিময় করেছে । আশা করা যায় নতুন এ আইনে ব্যবসায়ীদের আশা-আকাঙ্খার প্রতিফলন ঘটবে।

তিনি আরও বলেন, বর্তমান সরকার জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জনসহ অর্থনীতির সূচকে উল্লেখজনক অগ্রগতি অর্জন করেছে। তবে, ডুইং বিজনেস ক্যাটাগরিসহ বেশ কিছু সূচকে পিছিয়ে পড়ছে। যা অত্যন্ত উদ্বেগের বিষয়। এধরনের সূচকগুলোতে অগ্রগতি অর্জনে সকল পক্ষকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি । ডুইং বিজনেস সহ অন্যান সূচকে অগ্রগতি অর্জনে সুশাসন প্রতিষ্ঠার কোন বিকল্প নেই বলে অভিমত ব্যক্ত করেন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি বলেন, আমাদের শাসন ব্যবস্থায় প্রচুর অপ্রয়োজনীয় আইন রয়েছে, যেগুলো বাদ দেওয়া প্রয়োজন এবং সরকার এ লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আইন সমূহের সংস্কারে আরও গতি আনয়নের উপর জোরারোপ করেন। তিনি সরকার ও ব্যবসায়ী সমাজের মধ্যে আস্থা বাড়নোর উপর গুরুত্বারোপ করেন।

ডিসিসিআই সহ-সভাপতি রিয়াদ হোসেন, পরিচালক আন্দালিব হাসান, হোসেন এ সিকদার, ইমরান আহমেদ, খন্দ. রাশেদুল আহসান, মো. আলাউদ্দিন মালিক, সেলিম আকতার খান এবং মহাসচিব এএইচএম রেজাউল কবির এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

অর্থসূচক/জয়নাল/জেডআর