অটিজম সচেতনতায় বিশ্ব জুড়ে জ্বলে উঠবে নীল বাতি

0
91
Autism day

Autism dayআজ বুধবার বিশ্ব অটিজম দিবস। এ দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য ‘অটিজম সচেতনতা বৃদ্ধিতে আমরা সবাই’।

সপ্তম বিশ্ব অটিজম দিবসে সচেতনতা বাড়াতে সারা বিশ্বের সব গুরুত্বপূর্ণ ভবনে ও স্থাপনায় সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত জ্বলবে নীল বাতি।

ইতোমধ্যে দেশের সব গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাসহ সম্ভাব্য স্থানগুলোতে নীল বাতি জ্বালানোর জন্য মন্ত্রণালয় থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী বাণী দিয়েছেন।

দিবস উপলক্ষে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে এক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন সমাজকল্যাণমন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিশেষ অতিথি ছিলেন সমাজকল্যাণ প্রতিমন্ত্রী প্রমোদ মানকিন। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রতিবন্ধী উন্নয়ন অধিদপ্তর ও জাতীয় প্রতিবন্ধী কমপ্লেক্সের ফলক উন্মোচন করেন।

সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব নাছিমা বেগম বলেন, আজ হঠাৎ করে যদি সারা শহরে নীল বাতি জ্বলে ওঠে স্বভাবতই মানুষের মনে প্রশ্ন জাগবে, কেন এই নীল বাতি! তাদের এই প্রশ্নের উত্তরের মাধ্যমেই একজন ব্যক্তি অটিজম সম্পর্কে সচেতন হবেন।

সপ্তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস ২০১৪ উপলক্ষে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক ‘অটিজম সচেতনতা সৃষ্টিতে শিক্ষার্থীদের ভূমিকা’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়েছে। প্রতিযোগিতায় প্রথম তিনজন বিজয়ীর মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

গ্লোবাল অটিজম বাংলাদেশ-এর নির্বাহী পরিচালক নিউরোলজিস্ট ডা. মাজহারুল মান্নান বলেন, কী কারণে মস্তিষ্কের স্নায়ুকোষের বিপর্যয় ঘটে আর কী কারণে অটিজম হয় তা আমরা আজও জানি না। তাই অটিস্টিকদের ভেতরের কষ্টটা আমরা বুঝতে পারি না। তাদের এই অজানা কষ্টের সাথে একাত্ম হওয়ার জন্যই নীল বাতি জ্বালিয়ে পালিত হবে এবারের অটিজম দিবস।

বুধবার জাতিসংঘ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং এর সদস্য রাষ্ট্রসমূহ নিজ নিজ দেশের গুরুত্বপূর্ণ ভবন, স্থাপনা, প্রশাসনিক কেন্দ্র, হোটেল, মার্কেট, দোকান, স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়, ব্যাংক, পত্রিকা অফিস, রেডিও ও টেলিভিশন ভবন, পার্কসহ বিভিন্ন স্থানে সন্ধ্যা থেকে মধ্যরাত পর্যন্ত নীল বাতি জ্বালাবে।

এমআর/কেএফ/